বুধবার, ০৩ অক্টোবর ২০১৮, ০৩:০৪ অপরাহ্ন

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে এলজিএসপি প্রকল্পে ইটের রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার শিমুলিয়ায় এলজিএসপি প্রকল্পে নাম্বারবিহীন ইট ও যৎসামান্য বালু ছিটিয়ে নামসর্বস্য ইটের রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।
উপজেলার শিমুলিয়া ইউনিয়নের প্রাথমিক বিদ্যালয় মোড় রশিদের বাড়ী নিকট পাকা রাস্তা হতে খালের পাকা ব্রিজ পর্যন্ত ৯৭ মিটার রাস্তায় ইট সোলিং এ ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী।
এলাকাবাসী জানান, ইট সোলিং এর জন্য ১ লক্ষ ৬২ হাজার ১৯৮ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। রাস্তায় যে ইট ব্যবহার করা হয়েছে তা অত্যন্ত নি¤œমানের। শুধূ তাই নয়, রাস্তার উপর নামমাত্র বালু দিয়ে ইট বিছানো হয়েছে। আমরা এলাকাবাসী এ রকম ইট ও বালু দিয়ে কাজ করতে নিষেধ করলেও মহিলা ইউপি সদস্য পলি আক্তার তার ইচ্ছামতো কাজ করেছেন। মেসার্স ভাই ভাই ট্রেড ইন্টারন্যাশনাল, ঢাকা নামক একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দায়সারাভাবে এ কাজ সম্পন্ন করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
২৭ নভেম্বর সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, রাস্তার ইট অনেক জায়গায় দেবে গেছে, আবার অনেক জায়গায় ইট উঠে গেছে। এমনকি ইটে পা দিয়ে চাপ দিলেই তা সহজে ভেঙ্গে যাচ্ছে।
শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জসীম উদ্দিন বলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও ডিডিএলজি মহোদয় রাস্তার কাজ পরিদর্শন করে যা বলবেন তাই হবে।
১ নং ওয়ার্ড সদস্য আব্দুল মজিদ মিয়া বলেন, ওয়ার্ডের সেক্রেটারী হিসেবে পলি মেম্বার আমাকে প্রথমে ইট বালু ক্রয় করার জন্য সাথে নিয়ে ভাল মানের ইট ও বালু ঠিক করে আসেন। কিন্তÍু পরবর্তীতে সে আমাকে না জানিয়ে অন্য জায়গা থেকে নি¤œমানের ইট বালু এনে কাজ শেষ করেছেন।
অত্র ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ড মহিলা সদস্য ও ওয়ার্ড সভাপতি পলি আক্তার জানান, রাস্তার কাজে আমার কোন দোষ নেই। এ রাস্তা তৈরীতে আমার নিজের কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা খরচ হয়েছে।
শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএফএম ফিরোজ মাহমুদ প্রতিবেদককে বলেন, কাজের মান যাচাই বাছাই সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।