আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সিরাজগঞ্জ রায়গঞ্জের আদর্শ গ্রামে ইউপি সদস্যর চাঁদাবাজি

news-image

সিরাজগঞ্জ রায়গঞ্জের আদর্শ গ্রামে ইউপি সদস্য ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর চাঁদাবাজিতে এলাকাবাসি অতিষ্ট হয়ে পড়েছে। রায়গঞ্জে ভুমিহীন মানুষদের জন্য নির্মিত আদশর্ গ্রাম প্রকল্পে বরাদ্দ পাওয়া ঘর থেকে বের করে দিয়ে অন্যের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে ঘরে তুলে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে উপজেলার চান্দাইকোনা ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড সদস্য আঃ আলীমের বিরুদ্ধে। রায়গঞ্জ থানায় দায়ের করা অভিযোগ ও এলাকাবসাী সূত্রে জানা যায় উপজেলার বেংনাই গ্রামের বেল্লাল হোসেন নামের এক ভূমিহীনকে ১৫/২০ বছর আগে শ্যামগোপ আদর্শগ্রাম – ১ এর ৬ নং ঘরটি বরাদ্দ দেয়া হয়। দীর্ঘদিন বসবাসরত অবস্থায় বেল্লালের ছেলে নূরনবীর বিয়েকে কেন্দ্র করে পরিকল্পিত শালিস বৈঠক করে উক্ত মেম্বর। এ বৈঠকে বেল্লালের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা দাবি করা হয় নইলে ঘর থেকে উচ্ছেদের হুমকি দেয়া হয়। গরু/ছাগল বিক্রি করে উক্ত ভূমিহীন ৫০ হাজার টাকা প্রদান করলেও বেল্লালের শেষ রক্ষা হয়নি। তার কাছে আরো টাকা দাবি করা হয়।এ টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে ঘর থেকে চলে যেতে হুশিয়ারি দেয় এবং তাকে ঘর থেকে বের করে তালা ঝুলায়। তথ্যানুসন্ধানে জানা যায় মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে শ্যাপগোপ গ্রামের লিপি খাতুন পিতা আল-মাহমুদকে ঐ ঘরে তুলে দেয় আলীম মেম্বর। এলাকা ঘুরে জানা যায়, উক্ত মেম্বর আওয়ামীলীগের নাম ভাঙিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে যাচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে। তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খোলার সাহস পায় না। তার নেতৃত্বে গড়ে ওঠা তার ছোট ভাই লিটন, আইয়ুব, মামুন, আলামিন, বাঘা, বেল্লাল ও ফেরদৌস বাহিনী সাধারণ মানুষদের ভয়ভীতি ও জিম্মি করে জমি দখল, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মাদক, বালু মহাল নিয়ন্ত্রণ, নারীকেলেঙ্কারী ও প্রতারণার মত অপরাধ করে চলেছে অবিরাম। সম্প্রতি আলীম মেম্বরের মাদ্রাসার গাছ কেটে আত্মসাৎ করার খবর প্রকাশ করায় রায়গঞ্জ রিপোটার্স ইউনিটির সভাপতি সাংবাদিক নজরুল ইসলামকে প্রাননাশের হুমকি দিলে উক্ত সাংবাদিক রায়গঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। এ ঘটনায় রায়গঞ্জের সাংবাদিক মহল বিক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদ ও মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচী পালন করে। স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকাসহ ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় আলীম মেম্বরের নানা কুকর্মের খবর ফলাও করে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হতে থাকে। ভুক্তভোগী লোকজনও থানায় অভিযোগ ও জিডি করার সাহস ফিরে পায়। তার বিরেুদ্ধে নিজের জমির ২ লাখ টাকা মূল্যের গাছ জোর করে কেটে নেয়ার অভিযোগে সরাইহাজিপুর গ্রামের সাইদ রায়গঞ্জ থানায় ২৬ আগস্ট ২০১৯ তারিখে জিডি নং-১১৫০, আদর্শ গ্রামের বরাদ্দ পাওয়া ঘর থেকে জোর করে বের করে দিয়ে অন্যকে ঘরে তুলে দেয়ার অভিযোগে রাজ্জাক নামের এক ভূমিহীন ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে জিডি নং-২৩৫, তারেক নামের এক ব্যক্তি একই তারিখে জিডি নং-২৩৩, ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে আল-মামুন নামের এক ব্যক্তি ৩৩৮ নং জিডি করে। এছাড়াও শ্যামগোপ আদর্শগ্রাম – ২ প্রকল্পের বাসিন্দা নুুরুন্নাহার ও তার প্রতিবন্ধী স্বামী আকমলকে মেম্বরের সাজানো মামলা থেকে বাচানোর ভয় দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে ১ লাখ ৩ হাজার টাকা চাঁদা নেয়। রায়গঞ্জ থানায় তারাও একটি জিডি করে। এদিকে শালিশী বৈঠক বসিয়ে জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে সরাইহাজীপুর গ্রামের হোসেন সেখ এর স্বামী পরিত্যক্তা কন্যা ফিরোজা বেগমের কাছ থেকে জোর পূর্বক স্ট্যাম্পে সই নিয়ে ৫০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। তাকে আরো টাকা প্রদানের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এ টাকা না দেয়ার অপরাধে তার বাহিনী দিয়ে ফিরোজার ঘরে তালা ঝুলিয়ে দেয় এবং তাকে গ্রাম থেকে তাড়িয়ে দেয়। প্রায় দেড়মাস জেলা সদরের বাগবাটি এলাকায় আত্মীয়ের বাড়িতে থাকাকালীন সময়ে রায়গঞ্জ প্রেসক্লাব ও সাংবাদিকদের সহায়তায় গত মাসের ১২ তারিখে সংবাদ সম্মেলন ও থানায় অভিযোগ করে তার নিজ বাড়িতে ফেরে। মেম্বর ও তার বাহিনীর দ্বারা নির্যাতিত শ্যামগোপ গ্রামের আব্দুস সোবহান ১৪ মে ২০১৫ তারিখে রায়গঞ্জ থানায় ৫৩৮ নং জিডি, ১৫ আগস্ট ২০১৫ তারিখে সিদ্দিকুর রহমান রায়গঞ্জ থানায় ৬৪০ নং জিডি এবং একই তারিখে মুঞ্জিল ও জিয়া নামের দুই জন জিডি নং ৬৭৪ ও ৬৭৬ দায়ের করে। এছাড়াও সিদ্দিকুর রহমান বাদী হয়ে ১০ মে ২০১৫ তারিখে চাঁদাবাজির অভিযোগে রায়গঞ্জ থানায় মামলা নং – ৬ এবং মুঞ্জিল খান ১৭ জুন ২০১৫ তারিখে রায়গঞ্জ থানায় মামলা নং – ১১ দায়ের করে। ভয়ঙ্কর এ সকল অপরাধের সাথে যুক্ত আলীম ও তার বাহিনী রায়গঞ্জের এক আতঙ্কের নাম। এলাকাবাসী ওই সকল সন্ত্রাসীদের হাত ধেকে নিরহ মানুষকে রক্ষা করতে অপরাধীদের শাস্তির দাবি জানান।হারুন অর রশিদ খান হাসান