আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

অন্য এলাকায় হালকাসহ ভারী বৃষ্টি হতে পারে সিলেট-চট্টগ্রামে

লঘুচাপটি দুর্বল হয়ে পড়েছে। এ কারণে দেশের চার সমুদ্র বন্দরে দেওয়া ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে। তবে নদী বন্দরগুলোতে আগের ১ নম্বর সতর্ক সংকেত থাকছে। এর প্রভাবে ঢাকাসহ দেশের অনেক অঞ্চলে গত দু’দিন টানা বৃষ্টি হলেও আজ কিছুটা কমে এসেছে। সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগ ছাড়া অন্য এলাকায় আকাশ মেঘলাসহ হালকা বৃষ্টি হতে পারে। অন্যদিকে, সিলেট ও চট্টগ্রামে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে আজও।
আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, ‘আজ ঢাকার আকাশ মেঘলা থাকলেও গত দুই দিনের তুলনায় বৃষ্টি কমে আসবে। অন্য অঞ্চলের অবস্থাও ঢাকার মতোই থাকবে। তবে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হতে পারে।’
তিনি জানান, লঘুচাপ গুরুত্বহীন হয়ে পড়ায় সমুদ্র বন্দরের সংকেত নামিয়ে ফেলতে বলা হয়েছে। কিন্তু নদী বন্দরগুলোতে আগের মতোই ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত থাকছে।
আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও পশ্চিমবঙ্গ-বংলাদেশ উপকূলীয় এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি প্রথমে দুর্বল এবং পরে আরও দুর্বল ও গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে। দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর থেকে আগত লঘুচাপের বর্ধিতাংশ উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। উপ-মহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বিহার ও আশেপাশের এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু স্থানে এবং ঢাকা, বরিশাল ও সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় হালকা বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক হতে পারে।
এর ফলে সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে।
এদিকে, দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার অঞ্চলগুলোর ওপর দিয়ে দক্ষিণ ব দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি অথবা অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।
গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ বৃষ্টি হয়েছে কুমিল্লায়, ১২৪ মিলিমিটার। এছাড়া যশোরে ১২২, ঢাকায় ১০৪, ফরিদপুরে ৯৭, চাঁদপুরে ৭৯, চট্টগ্রামে ৭৮, কুতুবদিয়ায় ৬৭, মাদারীপুর ৬৪, মাইজদীকোট ৬২, সীতাকুণ্ড ৬১, ফেনী ও হাতিয়া ৬০, রাঙ্গামাটি ৫৪, ভোলা ও সন্দ্বীপে ৫৩, সাতক্ষীরায় ৪৮, বরিশাল ও শ্রীমঙ্গলে ৪৬, পটুয়াখালী ও গোপালগঞ্জ ৪০, কক্সবাজার ৩৫, খুলনায় ৩৩, খেপুপাড়া ও মোংলায় ৩২, চুয়াডাঙ্গায় ২৪, নিকলিতে ২২, কুমারখালী ও টাঙ্গাইলে ১৯, টেকনাফে ১৫, সিলেটে ৭, ঈশ্বরদীতে ৫, বগুড়া ও তাড়াশে ১ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। এছাড়া রাজশাহীতে সামান্য বৃষ্টি হয়েছে।