আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ফসলি জমি থেকে বালু উত্তোলন

news-image

কৃষিজমি সুরক্ষা আইনের কোন রকম তোয়াক্কা না করেই চলছে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন। আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে পুরাতন জলাশয় ভরাটের অভিযোগ উঠেছে জেলার সরাইলে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে। এতে যেমন ফসলি জমি হ্রাস পাচ্ছে তেমনি পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রভাব ও পাশের জমি হুমকির মুখে পড়ছে।

বালু উত্তোলনে জড়িতরা প্রভাবশালী হওয়ায় ভুক্তভোগীরা নিরবেই সয়ে যান, প্রতিবাদ করার সাহস দেখান না। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, জমি থেকে গভীরভাবে খনন করে বালু উত্তোলন করায় আশপাশের জমি ভেঙে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। কখন কার জমি ভেঙে গর্তে পড়ে যায় সেই আতঙ্কে রয়েছেন তারা।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার বেরতলা মোজাহিদ ফিলিং স্টেশনের পাশের তিনটি জমি থেকে অপরিকল্পিতভাবে ড্রেজিং করে বালু-মাটি উত্তোলন করা হচ্ছে। উত্তোলিত বালু-মাটি বিক্রি করার পাশাপাশি মাটি ফেলে প্রায় ৪০ শতাংশ জায়গার একটি পুরোনো জলাশয় ভরাট করা হচ্ছে।

অপরিকল্পিতভাবে গভীর খনন করার কারণে চারপাশের মাটি দেবে ভেঙে পড়ছে ড্রেজারকৃত গর্তের মধ্যে। এতে আশপাশের কৃষি জমি হুমকির মুখে পড়েছে। অন্যদিকে জলাশয় ভরাট করার ফলে পানি নিষ্কাশন ও পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কাও করা হচ্ছে।

স্থানীয় কৃষকদের অভিযোগ, বেরতলা গ্রামের মোজাহিদ ফিলিং স্টেমনের স্বত্বাধিকারি মোজাহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে কয়েকজনের একটি চক্র মাঠের মাঝের কিছু জমি ক্রয়ের পর ড্রেজার দিয়ে মাটি কেটে বিক্রি করছে। সেই সাথে চলছে পুকুর কিংবা অন্য ফসলি জমি ভরাটের কাজ। অবৈধ ড্রেজিংয়ের কারণে ৫০-৬০ ফুট গভীর থেকে মাটি ও বালি উত্তোলনের কারণে আশপাশের তিন ফসলের জমিগুলো ডোবায় পরিণত হচ্ছে।

বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০-এর ধারা ৫-এর ১ উপধারা অনুযায়ী, পাম্প বা ড্রেজিং বা অন্য কোনো মাধ্যমে ভূগর্ভস্থ বালু বা মাটি উত্তোলন করা যাবে না। ধারা ৪-এর (খ) অনুযায়ী, সেতু, কালভার্ট, বাঁধ, সড়ক, মহাসড়ক, রেললাইন ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনা অথবা আবাসিক এলাকা থেকে এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ। আইন অমান্যকারী দুই বছরের কারাদণ্ড ও সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

প্রাকৃতিক জলাধার সংরক্ষণ আইন-২০০০ অনুযায়ী, কোনো পুকুর, জলাশয়, নদী, খাল ইত্যাদি ভরাট করা বেআইনি। আইনের ৫ ধারা অনুযায়ী, প্রাকৃতিক জলাধার হিসেবে চিহ্নিত জায়গার শ্রেণি পরিবর্তন বা অন্য কোনোভাবে ব্যবহার, ভাড়া, ইজারা বা হস্তান্তর বেআইনি। কোনো ব্যক্তি এ বিধান লঙ্ঘন করলে আইনের ৮ ও ১২ ধারা অনুযায়ী পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন। একই সঙ্গে পরিবেশ সংরক্ষণ আইন (২০১০ সালে সংশোধিত) অনুযায়ী, যেকোনো ধরনের জলাশয় ভরাট করা নিষিদ্ধ।

ভুক্তভোগী কৃষকদের অভিযোগের ভিত্তিতে সাংবাদিকদের একটি প্রতিনিধি দল ঘটনাস্থলে গেলে তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে ড্রেজার চালকরা মেশিন ও অন্যান্য জিনিসপত্র রেখে পালিয়ে যায়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সাংবাদিকরা চলে আসার পর তারা আবারো মাটি কাটার কাজ শুরু করেন।

ড্রেজারের ঠিকাদার আমীর হোসেন ওরফে কালু মিয়া- আশিকুর রহমান রনি, ইমরান তালাশি ও লাইলী রহমানের নাম উল্লেখ করে বলেন, ‘সব কি আর আইন মেনে হয়। আমরা প্রশাসন ও সাংবাদিকদের ম্যানেজ করেই বালু উত্তোলন করি।’ তারা নিজেদেরকে ঢাকার বড় সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ড্রেজার সিন্ডিকেট থেকে নিয়মিত চাঁদা নেন বলেও তিনি জানান।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, তারা নিজেদেরকে বিবিসি নিউজ নামে একটি অখ্যাত নিউজ পোর্টালের সাংবাদিক বলে পরিচয় দিয়ে আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজি করে বেড়ায়। এ ধরনের অভিযোগে আশুগঞ্জ থানায় তাদের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। আশিকুর রহমান রনি গ্রেফতারের পর বেশ কয়েকবার কারাভোগ করেছেন। রনির স্ত্রী লাইলী রহমান নিজেকে আশুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক বলেও পরিচয় দেন। তবে প্রশাসনের কাকে ম্যানেজ করে কাজ করেন এ প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারেননি কালু মিয়া।

এ ব্যাপারে কথা বলতে মোজাহিদুল ইসলামের মোবাইলে (০১৬৮৭৪৬৫৭৭৪ এই নম্বরে) একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উপ-পরিচালক সুশান্ত সাহা বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখব।

পরিবেশ অধিদপ্তরের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উপ-পরিচালক খালেদ হোসেন বলেন, যেকোন ভূমির শ্রেণি পরিবর্তনের জন্য অনুমতি লাগবে। জলাশয় ভরাটের বিষয়টি আমরা খবর নেব। তবে কৃষি জমি খনন করার বিষয়টি কৃষি অফিস ও এসি ল্যান্ড অফিসের ব্যাপার।

সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুল হক মৃদুল বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

অভিযানের খবরে ড্রেজার রেখে পালালেন অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা

আনোয়ারায় বালু ব্যবসায়ীকে জরিমানা

মাটিকে গুরুত্ব দিয়ে খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

নাশকতা মামলায় বিএনপির বদলে আ.লীগ নেতা আটক পুলিশের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ দলীয় নেতাকর্মী

ধোপাজান নদীর বালু-পাথরের টাকা সিন্ডিকেটের পকেটে

পদ্মার চরে মাটি-বালু লুট চলছেই

শঙ্খ নদী থেকে বালু উত্তোলন, জরিমানা

চাঁঁদপুরের মেঘনা পাড়ের মাটি কাটায় ৪ জনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা

নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, জরিমানা আদায়

টাঙ্গাইলে চায়নার ডেইরি ফিডের জন্য নিশ্চিহ্ন হচ্ছে জমি ও শতাধিক বাড়ি

আমরা উন্নয়ন করি, আর বিএনপি মানুষ খুন করে: প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রামে ২৯ প্রকল্পের উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর