আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

আড়াইহাজারে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

news-image

ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের ফলে হুমকির মুখে পড়েছে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার নদী তীরবর্তী গ্রামগুলো। প্রশাসনের নাকের ডগায় এমন ব্যবসা চললেও এ ব্যাপারে তারা নীরব ভূমিকা পালন করছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।
সরেজমিনে দেখা গেছে, আড়াইহাজার উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদীতে সারিবদ্ধভাবে ড্রেজার মেশিন নদীতে বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছে এলাকার প্রভাবশালী একটি চক্র। বসতভিটা, রাস্তা, ব্লক তৈরি, স্কুল মাঠ ভরাটসহ ট্রাক্টর দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি হচ্ছে এসব বালু। এতে উপজেলার অনেক নদীতে অসময়ে ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভুক্তভোগীরা তাদের ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেন না। উপজেলার ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের ইদবারদী, প্রভাকরদী, বালিয়াপাড়া, মনোহরদী, উৎরাপুরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া ব্রহ্মপুত্র নদী থেকে এ বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। স্থানীয় রফিকুল, আউয়াল, আমির, ইলিয়াস, মাদক বিক্রেতা সোহেল, মুন্না বাবুসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্র দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে এ বালু উত্তলন করে আসছে। গত ১৫ দিন আগে ওই এলাকার ভুক্তভোগী এক লোক উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট অভিযোগ দিলেও তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। যার ফলে গ্রামবাসী গত জুন মাসের ২৫ তারিখে একত্রিত হয়ে ৬টি অবৈধ ড্রেজার পুড়িয়ে দেয়।
স্থানীয়রা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ড্রেজার মেশিন দিয়ে নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারণে নদীর তীর ভেঙে যাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নেয় না। আমরা অসহায় মানুষ, আমাদের কথা কে শোনে। এই ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. সোহাগ হোসেন জানান, আমরা বালু সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অচিরেই ব্যবস্থা নিব।