আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় পেটানো হলো মা-ছেলেকে

news-image

ভোলায় স্কুলছাত্রীকে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় আমিরুন নেছা (৬০) ও তার ছেলে মো. রুবেলকে (১৮) পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আহতরা ভোলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আহতদের বাড়ি ভোলা সদর উপজেলার ভেলুমিয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের চন্দ্রপ্রসাদ গ্রামে। এ ঘটনায় বুধবার ভোলা মডেল থানয় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আহতরা অভিযোগে জানান, মঙ্গলবার বিকালে তার আত্মীয় স্থানীয় সপ্তম শ্রেণির স্কুলছাত্রী (১৩) স্কুল শেষে বোন সুরাইয়ার শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে যাওয়ার সময় রাস্তায় পথরোধ করে চন্দ্রপ্রসাদ গ্রামের মো. বাবুল হাওলাদারের ছেলে রাব্বি হাওলাদার (১৮) ইভটিজিং করেন। পরে স্কুলছাত্রী বোনের বাড়ি ফিরে বিষয়টি বোন সুরাইয়া ও বোনের চাচিশাশুড়ি আমিরুন নেছাকে জানান।

এরপর আমিরুন নেছা ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ জানিয়ে রাব্বির বাবা বাবুল হাওলাদার, মা আলোমতি বেগম, বোন রুমা বেগমকে জানালে রাব্বিসহ তার পরিবারের সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে মারধর করেন। এ সময় রুবেল তার মাকে বাঁচাকে গেলে তাকেও মারধর করে ছুরি দিয়ে বুকে আঘাত করা হয়। ওই সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের পরিবারের সদস্যরা তাদের উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ভোলা মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. আরমান হোসেন জানান, ওই বিষয়ে থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তদন্তসাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।