আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ই-কমার্সসহ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রতারণার শাস্তি অবশ্যই হবে: প্রধানমন্ত্রী

news-image

দুঃসময়ের সুযোগ নিয়ে যারা ই কমার্সসহ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রতারণা করে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে তাদের শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে বলে হুঁশিয়ার করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার বিকেল ৪টায় গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। সদ্যসমাপ্ত নিউইয়র্ক সফর এবং জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনে যোগদান নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সম্প্রতি কিছু ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন ধরনের প্রতারণার প্রসঙ্গ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চান একজন সাংবাদিক।

শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের দুঃসময়ের সুযোগ নিয়ে কিছু মানুষ টাকা বানানোর জন্য যে প্রতারণাটা করে, এটার শাস্তি অবশ্যই হবে। আমরা বসে নেই, সাথে সাথে এদেরকে ধরা হয়েছে।

তিনি বলেন, একবার যখন ধরা হয়েছে তখন তারা টাকাগুলো নিয়ে কোথায় রাখল, কী করল, কী সম্পদ বানাল সেটাও কিন্তু খুঁজে বের করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে যতটুকু করার আমরা কিন্তু সব করেছি। এ ধরনের হায় হায় কোম্পানি যখন সৃষ্টি হয়, আপনাদের সাংবাদিকদের একটা দায়িত্ব থাকে এই নিয়ে। সবার ওপরেই আপনাদের একটা শ্যেন দৃষ্টি থাকে। তাই এ ব্যাপারে আপনাদের মনে হয় একটা দায়িত্ব আছে।

তিনি বলেন, যদি শুরুতেই আপনারা ধরিয়ে দিতে পারেন যে, এই কোম্পানিগুলো হায় হায় কোম্পানি বা এখানে প্রতারণা করছে বা এরা প্রতারক। অন্যদিকে মানুষও যদি একটু সতর্ক হয় তাহলে এ ধরনের সমস্যা কিন্তু হয় না।

জনগণের টাকা ফিরে দেওয়ার চেষ্টা চলছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, যেই টাকাগুলি তারা নিয়ে নিয়েছে, তারা কোথায় টাকা রেখেছে, কোথায় পাচার হয়েছে- সেই ব্যাপারগুলোরও তদন্ত হচ্ছে। যখনই এগুলো পাওয়া যাবে, আমরা সেগুলো ফেরত দেব।

তিনি বলেন, যেমন আমরা খালেদা জিয়ার ছেলে কোকোর টাকা ফেরত এনেছিলাম। সে পাচার করেছিল; কিছু টাকা হলেও ফেরত আনতে পেরেছিলাম। আরও এ রকম বহু টাকা আছে আমরা ফেরত আনার চেষ্টা করে যাচ্ছি।