আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

উল্লাপাড়া হাসপাতাল নিয়ে রোগীদের নানা অভিযোগ

news-image

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ার কাওয়াক মোড়ে অবস্থিত ৩০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটি পৌরশহরের প্রায় ৬ লাখ মানুষের চিকিৎসার একমাত্র স্থান। এই হাসপাতালে সরবরাহকৃত খাবারের মান নিয়ে অভিযোগের শেষ নেই রোগীদের। এ ছাড়াও হাসপাতালে রোগীর বেডের উপর বিড়ালের ছানাদের শুয়ে থাকতে দেখে মনে হয় এ যেন বিড়ালের সঙ্গেই রোগীদের বসবাস।

আর রোগীর পরিবর্তে কর্তব্যরত চিকিৎসকের চেম্বারে ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের দৌরাত্ম্যে অসহায় হয়ে পড়েছে সাধারণ রোগীরা। এতে করে চিকিৎসা সেবা ব্যাহত ঘটছে। ফলে সুচিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা সাধারণ রোগীরা। এমনকি হাসপাতালে খাবার মান ও পরিবেশ নিয়ে রয়েছে নানা অনিয়ম আর অভিযোগ।
কথা হয় চিকিৎসা নিতে আসা এক রোগীর স্বজন সানোয়ার হোসেনের সঙ্গে। তিনি বলেন, হাসপাতালের পরিবেশ মোটেও ভালো না। রোগীর বসবাসের জন্য অনুপযোগী। তবে হাসপাতালের পরিবেশটাই হলো আসল। হাসপাতালে ঢুকেই দেখি রোগীর বেডে বিড়ালের ছানা শুয়ে আছে। এসব বিড়াল যদি রোগীদের খাবারে মুখ দেয় আর সেই খাবার যদি রোগীরা না দেখে খেয়ে ফেলে তাহলে নানা ধরনের রোগ সংক্রমণ হতে পারে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রজব আলীসহ অনেকেই জানান, আমরা সঠিক সময়ে খাবার পাই না। সকালে এক প্যাকেট বিস্কুট আর একটি ডিম দেওয়া হয় এবং অনেক সময় দেখা যায় যে ভাত দিলে তরকারি থাকে না। আর যে পরিমাণে ভাত তরকারি দেওয়া হয় তাতে আমাদের পেট ভরে না। এ জন্য অনেক সময় আমাদের বাইরে থেকে খাবার কিনে খেতে হয়।
হাসপাতালে প্রবেশের সময় মূল ফটকেই দেখা মেলে অসংখ্য ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের। তাদের কাছ জানতে চাইলে তারা বলেন, প্রাইভেট ক্লিনিকে ডাক্তার ভিজিট করে এসে এই হাসপাতালের মাঠে ফাঁকা জায়গায় বসে সময় কাটাই। নিয়মনীতির উপেক্ষা করে ডাক্তারের চেম্বার থেকে এক কোম্পানির প্রতিনিধিকে বের হতে দেখা যায়। পরে সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যান ওই ব্যক্তি।
এ বিষয়ে উল্লাপাড়া সদর ৩০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আর, এম, ও) ফিরোজ তালুকদার সকল অভিযোগের ঘটনা স্বীকার করে বলেন, রোগীদের খাবার পরিবেশন নিয়ে আমি ঠিকাদারের সঙ্গে কথা বলেছি খুব দ্রুত এটার সমাধান করা হবে। হাসপাতালে রোগীর বেডে বিড়ালের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মূলত হাসপাতালে খাবার থাকার কারণেই বিড়াল আসে। আর ওষুধের কোম্পানির প্রতিনিধিদের এর আগেও লিখিতভাবে বলা হয়েছে যে অফিস চলাকালীন সময়ে তারা যেন না আসে। কিন্তু তারা তা মানছে না। তবে খুব দ্রুতই সকল সমস্যার সমাধান হবে বলে জানান তিনি।

সিরাজগঞ্জ জেলা সিভিল সার্জন ডা. রামপদ রায় বলেন, এ বিষয়ে আমার সঠিক জানা ছিল না, আপনার মাধ্যমে জানতে পারলাম। বিষয়গুলো খতিয়ে দেখে খুব দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেঁসে গেছেন তিন কর্মকর্তা চট্টগ্রাম পরিবেশ অধিদপ্তরে শুদ্ধি অভিযান শুরু

রাঙ্গাবালীতে দুই ড্রেজারচালকের জেল, ৭ শ্রমিকের ৫ লাখ টাকা জরিমানা

বাঁচতে চায় মা হারা অবুঝ শিশু তানহা

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় পারাপারের অপেক্ষায় ৭ শতাধিক গাড়ি

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল বন্ধ

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে দুর্নীতি দুদকের মামলা থেকে বাঁচতে ব্যাংকে টাকা জমা

অনিশ্চয়তা নিয়েই চালু হলো শিমুলিয়া-মাঝিকান্দি ফেরি

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কমিশন ১১ টি নির্দেশ।।

রূপগঞ্জে শিক্ষানবিশ আইনজীবীর বাড়িতে হামলা – ভাংচুর

মানিকগঞ্জ জেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ দুজন গ্রেফতার

মুরাদ হাসানের অনুষ্ঠানের বিতর্কিত উপস্থাপক কে এই নাহিদ রায়ান্স?

মুরাদকে গ্রেফতারের দাবিতে কুশপুত্তলিকা দাহ