আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে ১৭৩ নমুনা পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে চলে দিনভর গুঞ্জন, ফলাফল স্থগিত

সুজন কুমার কর্মকার, কুষ্টিয়া : কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে চার জেলার ১৭৩ নমুনা পরীক্ষার ফলাফল নিয়ে মঙ্গলবার দিনভর চলে গুঞ্জন। সোমবার কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থাপিত ল্যাবে এসব নমুনা পরীক্ষা করা হয়। জানাগেছে, ওই ফলাফলে ১৭৩ জনের মধ্যে ৬৭ জনের করোনা পজেটিভ হয়। এরমধ্যে কুষ্টিয়ার এক উপজেলা চেয়ারম্যান, এসিল্যান্ড এবং দুই ডাক্তারসহ ১৭ জনসহ ৩ জেলায় আরো ৫০ জনের করোনা পজেটিভ হয়। আগের তুলনায় অস্বাভাবিকভাবে পজেটিভ রোগির সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েন কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি সিভিল সার্জন ও জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অবশেষে মঙ্গলবার বিকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে জানানো হয়, সোমবারের ফলাফল স্থগিত করা হয়েছে। নতুন করে নমুনা আইইডিসিআর’র পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে রি-চেক করে চুড়ান্ত ফলাফল দেয়া হবে। এদিকে মঙ্গলবার কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে কুষ্টিয়া, মেহেরপুর ও চুয়াডাঙ্গা জেলার নতুন ৭৬জনের নমুনা পরীক্ষায় কুষ্টিয়ার ২জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে একজন মিরপুর উপজেলার অপরজন কুষ্টিয়া আইসোলেশনে চিকিৎসা নেয়া করোনা আক্রান্ত দৌলতপুরের দম্পতির চার বছরের শিশু সন্তান।

তবে সোমবারের রিপোর্টের ফলাফল স্থগিত করা হলেও যাদের করোনা সনাক্ত হয়েছে ঝুঁকি এড়াতে তাদের বাড়ী লকডাউন করেছে স্থানীয় প্রশাসন। এরমধ্যে এক উপজেলা চেয়ারম্যান, এসিল্যান্ড, সরকারি হাসপাতালের দুই চিকিৎসকসহ নারায়ণগঞ্জ ফেরত একই পরিবারের চারজন সদস্য, ঢাকা ফেরত এক তরুণী এবং অপর এক পরিবারের স্বামী-স্ত্রী ও তাদের তিন সন্তান রয়েছে। স্থগিত করা ফলাফলে তাদের সবার দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

কুষ্টিয়ার সিভিল সার্জন ডা. এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, সোমবারের ফলাফল স্থগিত করে নতুন নমুনা আইইডিসিআর’র পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে রি-চেক করে পরবর্তীতিতে চুড়ান্ত ফলাফল জানানো হবে।