আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং পটুয়াখালীর নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে মানুষের অনীহা

news-image

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে বিরামহীন বৃষ্টি ও দমকা বাতাস বয়ে চলেছে। স্বাভাবিকের চেয়ে দুই থেকে তিন ফুট পানি বেড়েছে। তলিয়েছে নিচু এলাকা। পানি ঢুকেছে ভাঙা বাঁধ দিয়েও।
জানা গেছে, গতকাল রবিবার মধ্যরাত থেকে একটানা বৃষ্টি শুরু হয়। সঙ্গে থেমে থেমে দমকা বাতাস। আজ সোমবার দুপুরে আগুনমুখা, বুড়াগৌরাঙ্গ, রাবনাবাদ ও দারছিড়া নদীতে জোয়ারের পানি বেড়ে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়।

স্থানীয়রা জানায়, ভাঙা বাঁধ দিয়ে উপজেলার চালিতাবুনিয়া ও চরমোন্তাজ ইউনিয়নের চরআন্ডা গ্রামে পানি ঢুকেছে।

এদিকে পায়রা সমুদ্রবন্দরে ৭ নম্বর বিপৎসংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের তথ্যানুসারে, উপজেলার ৭০টি আশ্রয়কেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে উপজেলা প্রশাসন, সিপিপি ও পুলিশের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হয়েছে।

তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বিকেল পর্যন্ত আশ্রয়কেন্দ্রগুলোতে যেতে মানুষ অনীহা প্রকাশ করেছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রাতে হয়তো মানুষ আসতে শুরু করবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং মোকাবেলায় আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আশ্রয়শকেন্দ্র খুলে দেওয়া হয়েছে এবং শুকনা খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ’

এ জাতীয় আরও খবর

বগুড়া নাব্য সংকটে যমুনা

সরকারি খালের মাটি যায় চেয়ারম্যানের ইটভাটায়

শ্রীনগরে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে পদ্মা নদী থেকে অবৈধভাবে বালু আসছে

লোহাগাড়ায় বালু উত্তোলনের গর্তে ভাসছিল হাতিশাবকের লাশ

বালু ব্যবসায়ী কাউছার হত্যা: বাবা-ছেলে গ্রেপ্তার

দুর্ভিক্ষের কবলে যেন পড়তে না হয়, সতর্ক হওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সচিবদের সঙ্গে বৈঠক

হাসপাতাল থেকে নিখোঁজ নবজাতককে উদ্ধার, নারীসহ গ্রেপ্তার ৪

জঙ্গিদের বিষয়ে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে জেলা প্রশাসক ড. ফারুক আহাম্মদকে পদোন্নতিজনিত বিদায়

বাঞ্ছারামপুর বার্তার সম্পাদককে হুমকীর প্রতিবাদে মানববন্ধন

অসময়ে ভাঙনে চিন্তার ভাঁজ ৫০ লক্ষাধিক মানুষের কপালে

অতীতের মতো বন্দুকের নল ঠেকিয়ে ক্ষমতা দখলের সুযোগ নেই: শিক্ষামন্ত্রী