আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

চাকরির প্রলোভনে তরুণীকে যৌনপল্লীতে বিক্রি, এক মাস পর উদ্ধার

news-image

গাজীপুরে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে এক নারীকে দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে বিক্রি করে দেয়ার এক মাস পর উদ্ধার করা হয়েছে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন বাসন থানার পুলিশ বুধবার রাতে ওই নারীকে উদ্ধার করেছে। এ সময় এক যুবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃত পাচারকারী সোহেল রানা (২৫) রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ থানার সামসু মাস্টার পাড়া গ্রামের বাবুল সরদারের ছেলে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (অপরাধ-উত্তর) জাকির হাসান জানান, প্রায় এক মাস আগে গত ১১ আগস্ট গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানাধীন ভোগড়া বাইপাস এলাকার রুপা গার্মেন্টসের সামনে চাকরির জন্য যান ২২ বছরের এক তরুণী। এ সময় সেখানে অজ্ঞাতপরিচয় ৩/৪ জন যুবক তাকে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গাড়িতে তুলে নিয়ে দৌলতদিয়া যৌনপল্লীতে নিয়ে যান।

সেখানে তাকে এক লাখ বিশ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন তারা। পরে এ ঘটনায় তরুণীর স্বামী জিএমপির বাসন থানায় অভিযোগ করেন।

অভিযোগ পাওয়ার পর বাসন থানা-পুলিশের এসআই গোলাম ফারুকের নেতৃত্বে গত ৮ সেপ্টেম্বর রাতে অভিযান চালিয়ে দৌলতদিয়া যৌনপল্লী হতে ওই নারীকে উদ্ধার করে। একই দিন দিবাগত গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় চক্রের মূল হোতা সোহেল রানাকে রাজধানীর উত্তরখান এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জিএমপির বাসন থানার ওসি মালেক খসরু খান জানান, এ বিষয়ে জিএমপির বাসন থানায় মানব পাচারের আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

এ জাতীয় আরও খবর