আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

চিকেন বার্গার খেতে গিয়ে মারা গেল শিশুটি

news-image

নড়াইলের লোহাগড়ায় মাংসযুক্ত চিকেন বার্গার খেতে গিয়ে তা শ্বাসনালীতে বেঁধে আব্দুল্লাহ আল মামুন (৯) এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকালে লোহাগড়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত আব্দুল্লাহ আল মামুন লক্ষীপাশা এলাকার ব্যবসায়ী রাশেদ খন্দকার জুনায়েতের ছেলে। সে আরএলপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।

জানা গেছে, লোহাগড়া পৌরসভার আব্দুল্লাহ আল মামুন ও তার সহপাঠী মিলে রোববার বিকালে থানার সামনে একটি ফাস্টফুডের দোকানে চিকেন বার্গার খেতে যায়। খাওয়ার এক পর্যায়ে আব্দুল্লাহ আল-মামুনের গলায় চিকেন বার্গারের মধ্যে থাকা হাড়যুক্ত মাংস শ্বাসনালীতে বেঁধে অসুস্থ হয়ে পড়ে। স্থানীয়রা দ্রুত তাকে লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে ওই ফাস্টফুডের মালিক সোহাগ বলেন, শিশুটি আমার দোকানে এসে চিকেন বার্গার খেতে বসে। খাওয়ার সময় তার গলায় চিকেন বার্গারের মাংস বেঁধে যায়। এ সময় স্থানীয়রা ও আমার দোকানের কর্মচারীরা তাকে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে শিশুটির মৃত্যু হয়।

লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার বিপাশা মোশারফ জানান, জরুরি বিভাগ আনার আগেই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। তার গলার শ্বাসনালীতে খাবার বেঁধে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

লোহাগড়া থানার ওসি শেখ আবু হেনা মিলন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।