আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

চেয়ারম্যান নাকি ইউএনও বড়, এই বিতর্কেই সভা শেষ

news-image

চেয়ারম্যান নাকি ইউএনও, কে বড়? এই বিতর্কেই শেষ হয়েছে উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভা। আজ সোমবার রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভায় কে বড় এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় জড়িয়ে পড়েন উপজেলা চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সরকার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফাতেমাতুজ জোহরা। অবশেষে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ করা হয়ে যায় উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভা।
সভায় উপস্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান উচ্চ আদালতের রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে বলেন, ‘ইউএনও সচিবের দায়িত্ব পালন করবেন।’

এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানান ইউএনও। তিনি বলেন, ‘উচ্চ আদালতে রায় হয়েছে ঠিকই কিন্তু রায়ের পরিপ্রেক্ষিতে এখনো কোনো নির্দেশনামূলক চিঠি পাঠানো হয়নি। এর আগে এ বিষয়ে আলোচনা যুক্তিযুক্ত নয়।’
উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, ‘উচ্চ আদালতের রায় অনুযায়ী উপজেলা চেয়ারম্যান প্রধান হবেন।’

এভাবেই তর্ক বিতর্কের মধ্য দিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই শেষ করা হয় উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভা।
সভায় এই তর্ক-বিতর্কের বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি লতিবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী মণ্ডল বলেন, ‘আমি শুধু জানতে চেয়েছিলাম উপজেলা পরিষদে আসলে কে বড়?’

উল্লেখ্য, গত ১৬ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ প্রতিটি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) মতো নিরাপত্তা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। একই সঙ্গে উপজেলা পরিষদ ভবনের সাইনবোর্ডে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের পরিবর্তে উপজেলা পরিষদ কার্যালয় লেখার নির্দেশ দিয়েছেন।

উপজেলা চেয়ারম্যানদের ক্ষমতা খর্ব করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের ক্ষমতা দেওয়ার বৈধতা নিয়ে তিনজন উপজেলা চেয়ারম্যানের এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত এই অন্তর্বর্তী আদেশ দেন। একই সঙ্গে আদালত উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮-এর ধারা ১৩(ক), ১৩(খ) ও ১৩(গ) কেন সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হবে না, তা জানতে চেয়ে সরকারের প্রতি কারণ দর্শানোর নোটিশ জারি করেছেন।