আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

টাঙ্গাইলে নির্মাণাধীন ভবনে ‘বোমা’ রেখে চাঁদা দাবি

news-image

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে নির্মাণধীন ভবনে বোমা সাদৃশ্য বস্তু রেখে বাসার মালিককে চিঠি দিয়ে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছে দুর্বৃত্তরা।
বুধবার (২৪ নভেম্বর) সকালে উপজেলার নন্দনপুর বাজারে মো. আব্দুর রাজ্জাকের বাসায় এই ঘটনা ঘটে।
বাড়ির মালিকের চাচাতো ভাই মাসুদ মিয়া বলেন, আমার চাচাতো ভাই-বোনেরা মিলে বাড়িটি নির্মাণ করেছে। চাচাতো ভাই আশুলিয়ায় চাকরি করে। বোন প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক। আমার চাচি পাশেই একটি টিনশেড বাসায় ভাড়া থাকেন। সকালে চাচি ফজরের নামাজ শেষে দরজা খুলতেই দেখেন চিঠি পড়ে রয়েছে।
চিঠিতে দুর্বৃত্তরা এক লাখ টাকা দাবি করেছে। তবে কারো ঠিকানা দেওয়া হয়নি। চাঁদার এক লাখ টাকা রাত ১০টার আগে পার্শ্ববর্তী ব্রিজের পাশে চালতা গাছে নিচে হলুদ চিপসের প্যাকেটের নিচে রাখতে হবে বলে চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে। তা না হলে বোমা বিস্ফোরণ হবে হুমকি দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।
চিঠিতে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, টাকা পাওয়ার পর রিমোর্ট কন্ট্রোলের মাধ্যমে বোমাটি বোম নষ্ট করা হবে। টাকা পরিশোধের পর বোমটি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়ার পরামর্শের কথা উল্লেখ করে দুর্বৃত্তরা।
এদিকে এ ঘটনার পর আতঙ্কের দিন পার করছে নির্মাণাধীন ভবনের মালিকরা। বিষয়টি পুলিশকে অবগত করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে গোপালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন ভূঁইয়া বলেন, নির্মাণাধীন তিন তলা ভবনের নিচ তলায় বোমা সাদৃশ্য বস্তুটি রাখা হয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। ঢাকা থেকে বোম ডিসপোজাল ইউনিট আসলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। পুলিশ বাড়িটি ঘিরে রেখেছে।