আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে গরু বোঝাই ট্রাক ছিনতাই!

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে সোমবার (২৪ মে) ভোরে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত-পা ও মুখ বেধে গরু বোঝাই ট্রাক ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে। লুট করা হয়েছে আরও ২ লাখ ৭২ হাজার টাকা, চারটি মোবাইল সেট ও রূপার একটি ব্রেসলেট। পরে ৯৯৯-এ ফোন পাওয়ার পর আহত ব্যবসায়ী, ট্রাক চালক ও সহযোগীসহ পাঁচজনকে উদ্ধার করে পুলিশ।

আহতরা হলেন মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলার উত্তর গোহেরকান্দি এলাকার সিরাজ জমাদ্ধারের ছেলে ব্যবসায়ী রিমন হোসেন, একই এলাকার মুন্নাব বেপারীর ছেলে নুর আলম, রাজশাহীর গোধাগাড়ি থানার মাঠুপাড়া এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে ট্রাক চালক তারেক রহমান, একই এলাকার রফিকুল আলমের ছেলে চালকের সহযোগী ওয়াসিম আলম ও কুষ্টিয়ার বেড়ামারা থানার গোলাপনগর এলাকার মজিবুর বেপারীর ছেলে মামুন হোসেন।

গরু ব্যবসায়ী, পুলিশ ও অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলার কাটাখালি এলাকার মালিক হাসান, রিমন হোসেন ও শরীফ হোসেন তিন ব্যবসায়ী রাজশাহী সিটির হাট থেকে ১৮টি গরু-মহিষ কিনে রোববার সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে ট্রাকযোগে (ঢাকা মেট্রো- ট ১৪-৫১২৪) মুন্সিগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা দেন। সোমবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের কালিয়াকৈর উপজেলার চান্দরা পল্লীবিদ্যুৎ সিপি কারখানার সামনে পৌঁছালে মাইক্রোবাসযোগে ৮-৯ জনের একদল ছিনতাইকারী হাজির হয়। তাদের সঙ্গে ছিল পিস্তল, ওয়াকিটকি, চাকুসহ দেশীয় অস্ত্র। ছিনতাইকারীরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তাদের হাত-পা ও মুখ বেধে ফেলে এবং মারধর করে। গরু ও মহিষ ব্যবসায়ীদের কাছে ফেনসিডিল আছে বলেও জানায় ডিবি পুলিশ পরিচয় দানকারী ছিনতাইকারীরা। এসময় ব্যবসয়ীদের কাছে থাকা ২ লাখ ৭২ হাজার টাকা, চারটি মোবাইল ও রূপার ব্রেসলেট লুট করে। ছিনতাইকারীরা গরু বোঝাই ট্রাক নিয়ে পালায় এবং মাইক্রোবাসে করে ট্রাকের পাঁচজনকে তোলে নিয়ে অন্যত্র ফেলে রেখে চলে যায়।

এ ঘটনায় ব্যবসায় রিমন হোসেন বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

কালিয়াকৈর থানার ওসি অপারেশন পারভেজ আহম্মেদ জানান, গরু বোঝাই ট্রাক ছিনতাইয়ের ঘটনা শুনেছি। বিষয়টি তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্ত শেষে এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হবে।