আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

তাড়াশে কাঁচা সড়ক আর পাকা হয় না

news-image

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার হেদারখাল-কুন্দইল সড়ক। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকেই কাঁচা এই সড়কটি পাকা হবে এ আশা এলাকাবাসীর। কিন্তু কাঁচা সড়ক আর পাকা হয় না। জনপ্রতিনিধিরা বারবার শুধু প্রতিশ্রুতিই দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু আজ অবধি ওই সড়কটিতে কোনো কাজ হয়নি। সামান্য বৃষ্টিতেই চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়ে রাস্তাটি। প্রতিনিয়তই মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

জানা যায়, উপজেলার তাড়াশ-বারুহাস সড়কের সংযোগ স্থল হেদারখাল-কুন্দইল পর্যন্ত তিন কিলোমিটার কাঁচা সড়ক পাকা না করায় জনদুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজারো লোককে কাদা ভেঙে যাতায়াত করতে হয়। ভ্যান, সাইকেল, মোটরসাইকেল তো দূরের কথা, মানুষ পায়ে হেঁটে চলতেও কষ্টের শিকার হন। এ সড়ক দিয়ে সান্দুরীয়া, ধাপতেতুলিয়া, প্রতিরামপুর, কুন্দইল, উপজেলা সদরসহ বিভিন্ন গ্রামের লোকজন যাতায়াত করে থাকে। বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় এলাকাবাসী বাধ্য হয়েই কাদা-পানি মাড়িয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করছে।
সরেজমিন দেখা যায়, সড়কের মাঝখানে সৃষ্টি হয়েছে অসংখ্য ছোট-বড় গর্তের। আর তাতে প্রতিনিয়ত জমছে পানি। চলাচল করতে পারছে না যানবাহন। পায়ে হেঁটে চলাচল করাও এখন কষ্টসাধ্য। সড়কটি পাকা হলে একদিকে যেমন বিভিন্ন গ্রামের ছাত্রছাত্রী ও লোকজনের যাতায়াতে ভোগান্তি কমবে, অন্যদিকে মুমূর্ষু রোগী বহনে বেগ পেতে হবে না। শ্রমজীবী মানুষেরা ভ্যান, অটোরিকশা চালিয়ে সহজে জীবিকা নির্বাহ করতে পারবেন। এলাকার কৃষকরা ধান, পাট, কাঁচা ফসল কম খরচে বাজারে নিয়ে বিক্রি করতে পারবেন।

সগুনা ইউনিয়নের সান্দুরীয়া গ্রামের বেসরকারী চাকরিজীবী জাহাঙ্গীর বকুল বলেন, হেদারখাল টু কুন্দইল রাস্তার বর্তমান যে অবস্থা পরিবার নিয়ে বাড়ি এসে বুঝলাম- আমাদের এলাকাবাসী কেমন আছে। সগুনা ইউনিয়নের ধাপতেতুলিয়া গ্রামের সায়েম উদ্দিন বলেন, কয়েক হাজার মানুষের যাতায়াতের একটি মাত্র রাস্তা এটি। বর্ষার দিনে এই রাস্তা ডুবে যায়। তখন নৌকা চড়ে যাতায়াত করতে হয়। আর শুষ্ক মৌসুমে একেবারেই চলাচল করা যায় না। অনেক সময় মাটি পিছলে বয়স্ক মানুষ পড়ে গুরুতর আহত হয়। মোটরসাইকেল, ভ্যান গাড়ি, সাইকেল কাদার মধ্যে দেবে গিয়ে উল্টে যায়। এসব দেখার যেন কেউ নেই।
এ ব্যাপারে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের তাড়াশ উপজেলা প্রকৌশলী ইফতেখার সরোয়ার ধ্রুব বলেন, স্থানীয় এমপি মহোদয় দেড় কিলোমিটার রাস্তার জন্য চাহিদা দিয়েছেন। দ্রুত উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বরাবর চাহিদাটি পাঠানো হবে। এলাকাবাসীর চলাচলের উপযুক্ত করার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

পদ্মা সেতু: শিল্পের জন্য প্রস্তুত গোপালগঞ্জ

এখন যানবাহনের অপেক্ষায় ফেরি

ফেরিতে পাঁচ ভাগের এক ভাগে নেমে এলো ছোট গাড়ি

বাঁশখালীতে বিদ্যুৎকেন্দ্রে বিস্ফোরণ

মানিকগঞ্জে পদ্মা সেতুর লাইভ অনুষ্ঠানে অস্ত্র নিয়ে মহড়া, সাংবাদিক গ্রেপ্তার

উল্লাসে মেতেছে পদ্মা পাড়ের মানুষ

চার মাস না যেতেই উঠছে ৯ কোটি টাকার সড়কের পিচ

পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পিঠা উৎসব

নদী ভাঙা মানুষের বিলাপ

সাঁতরে মঞ্চে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলল কিশোরী

বঙ্গবন্ধুর শ্রেষ্ঠ উপহার স্বাধীনতা, আর প্রধানমন্ত্রীর শ্রেষ্ঠ উপহার পদ্মা সেতু : পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী

সেতুর উদ্বোধনে ফায়ার সার্ভিসের শোভাযাত্রা