আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

দুর্গাপুরে এইচএসসির ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

news-image

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে সুসং সরকারি মহাবিদ্যালয়ে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

অতিরিক্ত এ ফি পরিশোধ করতে অনেক অভিভাবককেই বিপাকে পড়েছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় শিক্ষার্থী অভিভাবকরা সাংবাদিকদের এ অভিযোগ করেন।

অভিভাবকরা বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ২০২১ সালের এইচএসসি ১ম বর্ষের শিক্ষার্থীদের জন্য দেয়া প্রধানমন্ত্রীর শতভাগ শিক্ষা উপবৃত্তি থেকে বঞ্চিত হয়েছেন প্রায় ১ হাজার ১০০ শিক্ষার্থী।

সরকারি কলেজে এমন অযোগ্য প্রিন্সিপাল আসবে তা আমরা ভাবিনি। সেইসঙ্গে এবার এইচএসসি ফরম পূরণের বিষয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষা বোর্ডের দেয়া নির্দেশনাকে উপেক্ষা করে নির্ধারিত বোর্ড ফির সঙ্গে অতিরিক্ত দেড় হাজার টাকা আদায় করছেন।

এছাড়া করোনাকালে কলেজ বন্ধ থাকলেও ব্যবস্থাপনা বাবদ আদায় করছেন অতিরিক্ত আরও ২০০ টাকা। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ২০২১ সালের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণে বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য বোর্ড ফি ৮০০ টাকা, কেন্দ্র ফি (ব্যবহারিকসহ) ৩৬০ টাকা ও মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের জন্য বোর্ড ফি ৭৭০ টাকা, কেন্দ্র ফি ৩০০ টাকা আদায়ের নির্দেশনা দিয়েছেন।

সে অনুযায়ী এইচএসসি পরীক্ষার জন্য শুধু বোর্ড নির্ধারিত পরীক্ষা ফি ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বকেয়া বেতন ছাড়া অন্য কোনো অর্থ আদায় করতে পারবে না শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। কিন্তু এ নির্দেশনা উপেক্ষা করেই অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ফরম পূরণের সময় বৃদ্ধি করা হলেও কলেজের পক্ষ থেকে মানবিক শাখায় নিয়মিত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ২ হাজার ৪৭৫ টাকা ও বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ২ হাজার ৫৭৫ টাকা হারে আদায় করা হচ্ছে। সেইসঙ্গে মান উন্নয়ন এবং পুরাতন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকেও ১ হাজার থেকে ১২০০ টাকা অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ রয়েছে।

এ নিয়ে অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান বলেন, অনলাইনে ফরম পূরণের ক্ষেত্রে বোর্ডের নির্দেশনা মোতাবেক অর্থ আদায় করা হচ্ছে। এতে তিনটি অংশের মধ্যে একটি অংশ বোর্ড, একটি কেন্দ্র ও আরেকটি অংশ কলেজের।

কলেজের অংশটি প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন খাতে ব্যয় হয়ে থাকে। প্রতিষ্ঠানের জন্য অন্য কোন খাতে টাকা আদায় করা যাবে না মর্মে নিষেধ থাকলেও তা নিচ্ছেন কেন? এমন প্রশ্ন করলে বিষয়টি এড়িয়ে যান তিনি।

অতিরিক্ত ফি আদায়ের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রাজীব-উল আহসান বলেন, সরকারি নির্দেশনার বাইরে কোন ধরনের অর্থ আদায় সম্পূর্ণ বেআইনী। এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ জাতীয় আরও খবর