আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

দেশের ১৯ উপজেলায় সহিংসতার আশঙ্কা, র‌্যাব-বিজিবি-পুলিশ মোতায়েন

news-image

আগামীকাল বুধবার (৫ জানুয়ারি) অনুষ্ঠিতব্য পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে দেশের ১৯টি উপজেলায় সহিংসতার আশঙ্কার বিপুল সংখ্যক বিজিবি ও র‌্যাব সদস্য মোতায়েন করা হচ্ছে। এছাড়া একইসঙ্গে মোতায়েন থাকবে অতিরিক্ত র‌্যাব সদস্য।
নির্বাচন কমিশন (ইসি) ইতোমধ্যে এসব অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েনের অনুমোদন দিয়েছে এবং এ জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে।

ইসি সূত্রে জানা যায়, ইতোমধ্যেই প্রত্যেক উপজেলায় র‌্যাবের ২টি মোবাইল টিম ও একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স, বিজিবির ২ প্লাটুন মোবাইল টিম ও একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স এবং কোস্ট গার্ডের ২ প্লাটুন মোবাইল টিম ও একটি স্ট্রাইকিং ফোর্স মোতায়েন রয়েছে। পাশাপাশি মোতায়েন রয়েছে পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্য।

প্রসঙ্গত, বুধবার দেশের ৪৮ জেলার ৯৫ উপজেলার ৭০৮টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সহিংসতার আশঙ্কায় যেসব উপজেলায় অতিরিক্ত ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে সেগুলো হলো- চাঁপাইনবাবগঞ্চ সদর (১ প্লাটুন বিজিব); সাতক্ষীরার আশাশুনি (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম), শ্যামনগর (১ প্লাটুন বিজিবি) ও কলারোয়া (১ প্লাটুন বিজিব ও র‌্যাবের একটি টিম); মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া (২ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম); চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ (২ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম), হাইমচর (২ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ১টি টিম) ও কচুয়া (২ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম); সিরাগগঞ্জের কাজীপুর (১ প্লাটুন বিজিবি); জামালপুরের বকশীগঞ্জ (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ১ টি টিম) ও দেওয়ানগঞ্জ (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ১টি টিম); চট্টগ্রামের বোয়ালখালী (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম) ও চন্দনাইশ (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম); মানিকগঞ্জের হরিরামপুর (২ প্লাটুন বিজিবি) ও দৌলতপুর (১ প্লাটুন বিজিবি); ভোলা সদর (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম); হবিগঞ্জের মাধবপুর (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম) ও চুনারুঘাট (১ প্লাটুন বিজিবি ও র‌্যাবের ২টি টিম) এবং টাঙ্গাইলের ঘাটাইল (১ প্লাটুন বিজিবি)।
উল্লেখ্য, এ ধাপে ৭০৮টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৪০টিতে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ করা হবে। বাকিগুলোতে ব্যালটে ভোট হবে। এতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৩৬ হাজার ৪৫৭ জন প্রার্থী। তাদের মধ্যে চেয়ারম্যান ৩ হাজার ২৭৪ জন, সংরক্ষিত সদস্য ৭ হাজার ৯৫০ এবং সাধারণ সদস্য ৩৯ হাজার ৩৯১ জন। এ ধাপে মোট ভোটার সংখ্যা ১ কোটি ৪২ লাখ ২০ হাজার ১৯৫ জন। এরমধ্যে নারী ভোটার ৬৮ লাখ ৩৬ হাজার ৩১ জন ও পুরুষ ৭০ লাখ ৬০ হাজার ১৪০ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ২১ জন।

এ ধাপের ইউপি নির্বাচনে ৫২ জন চেয়ারম্যান বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা সদস্য ৩২ জন এবং সাধারণ সদস্য ১০৯ জন বিনা ভোটে জয়ী হন।

এ জাতীয় আরও খবর