আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ধর্ষণের পর অচেতন পরীক্ষার্থীকে হাসপাতালে রেখে পালাল বখাটে

সপ্তাহ পার হতে না হতেই এবার মাদারীপুরে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়া এক শিক্ষার্থীকে নেশাদ্রব্য খাইয়ে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক বখাটের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর বখাটে নিজেই ওই শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে রেখে পালিয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় সোমবার রাত ১১টায় মাদারীপুর সদর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার। বখাটে ওই যুবককে গ্রেপ্তারে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে সদর থানা পুলিশ।

ভুক্তভোগী ও তার পরিবারের বরাতে জানা যায়, মাদারীপুর সদর উপজেলার কালিকাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে রবিবার দুপুরে ব্যবহারিক পরীক্ষার খাতা দেখানোর জন্যে বিদ্যালয় যায় ওই শিক্ষার্থী। এসময় প্রেমের সর্ম্পকের সুবাদে সদর উপজেলার স্বনির্ভর ছিলারচর গ্রামের আশরাফ সর্দারের ছেলে সজীব সর্দার (২২) কৌশলে ওই শিক্ষার্থীকে মাদারীপুর পৌর শহরের পুরান বাজার এলাকার একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে যায়। পরে বিকেলে ৫টার দিকে পানীয়ের সঙ্গে নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে অচেতন করে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে। এতে শিক্ষার্থীর রক্তপাত শুরু হয় এবং সে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে রাত ৯টার দিকে বখাটে ওই শিক্ষার্থীকে নিজেই মাদারীপুর সদর হাসপাতালে দিয়ে সে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি জানা-জানি হলে রাতেই ভুক্তভোগীর পরিবার ও সদর থানা পুলিশ হাসপাতালে ছুটে যায়।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী জানায়, প্রায় এক বছর ধরে সজীবের সাথে তার প্রেমের সর্ম্পক ছিল। ব্যবহারিক পরীক্ষার খাতার দেখানোর জন্যে বিদ্যালয় গেলে ঘুরতে নেয়ার কথা বলে সে মেয়েটিকে পুরান বাজারের একটি হোটেলে নিয়ে যায়। সেখানে তার সঙ্গে সজীবের ধ্বস্তাধ্বস্তি হয়। পরে তাকে একটি বোতলে পানি খেতে দেয় সে। পানি খাওয়ার কিছু সময় পরই অচেতন হয়ে পড়ে ওই শিক্ষার্থী। মেয়েটি বলে, এরপর জ্ঞান ফেরার পর প্রচণ্ড যন্ত্রণা অনুভব করি। আবারো জ্ঞান হারাই। রাতে দেখি আমি হাসপাতালের বিছানায়। আমি সজীবের কঠোর শাস্তি দাবি করি।

সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. রিয়াদ মাহমুদ বলেন, প্রাথমিকভাবে শিক্ষার্থীকে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে ধর্ষণের বিষয়টি জানার পরে নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। পরীক্ষার রিপোর্ট পেলে স্পষ্টভাবে বলা যাবে সে ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিনা। এর আগে কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে তার যৌনাঙ্গে ক্ষতচিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, ঘটনা জানার পর সদর হাসপাতালে গিয়ে একজন এসআই খোঁজ-খবর নিয়েছেন। রাতে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। তবে এরই মধ্যে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চলছে। কোনভাবেই অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হবে না।

এর আগে ২৯ সেপ্টেম্বর বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয় সদর উপজেলার ছিলারচর ইউনিয়নের তিন বারের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল সর্দারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ওসি মনোয়ার হোসেন চৌধুরী বলেন, মামলা হওয়ার পর থেকেই আসামি পলাতক। এ কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে পুলিশ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারের। অল্প সময়ের মধ্যেই তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

অভিযানের খবরে ড্রেজার রেখে পালালেন অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা

আনোয়ারায় বালু ব্যবসায়ীকে জরিমানা

মাটিকে গুরুত্ব দিয়ে খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

নাশকতা মামলায় বিএনপির বদলে আ.লীগ নেতা আটক পুলিশের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ দলীয় নেতাকর্মী

ধোপাজান নদীর বালু-পাথরের টাকা সিন্ডিকেটের পকেটে

পদ্মার চরে মাটি-বালু লুট চলছেই

শঙ্খ নদী থেকে বালু উত্তোলন, জরিমানা

চাঁঁদপুরের মেঘনা পাড়ের মাটি কাটায় ৪ জনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা

নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, জরিমানা আদায়

টাঙ্গাইলে চায়নার ডেইরি ফিডের জন্য নিশ্চিহ্ন হচ্ছে জমি ও শতাধিক বাড়ি

আমরা উন্নয়ন করি, আর বিএনপি মানুষ খুন করে: প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রামে ২৯ প্রকল্পের উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর