আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে শিবালয় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা নকুল কারাগারে

news-image

সুরেশ চন্দ্র রায়, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি।

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মনোরঞ্জন শীল নকুল (৫৫)-কে গ্রেপ্তার করেছে শিবালয় থানা পুলিশ ।

১০ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) রাত ৮ টার দিকে শিবালয় নতুন পাড়া নামক এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। নকুল ওই এলাকার মৃত মঙ্গল চন্দ্র শীলের ছেলে।

শিবালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: ফিরোজ কবীর জানান, মনোরঞ্জন শীল নকুল কয়েকদিন আগে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় আহন হন। প্রতিবেশী অসহায় এক কলেজ ছাত্রী প্রতিদিন তিনশত টাকার বিনিময়ে তার হাত ম্যাসেজ করে দিতেন। প্রতিদিনের মত গত বৃহস্পতিবার দুপুরে হাত মেসেজ করে দিতে গেলে নকুল জোড় করে তার শরীরের বিভিন্ন স্পর্শকাতর স্থানগুলোতে হাত দেয় এবং ধর্ষণ চেষ্টা চালায়। এ সময় কলেজ ছাত্রীর চিৎকারে অন্য ঘরে থাকা তার স্ত্রী এগিয়ে আসলে তাকে ছেড়ে দেয়।

ভুক্তভোগীর মা বলেন, এ ঘটনার পর নকুল আমাদের পাঁচ হাজার টাকা দিয়ে কাউকে কিছু না বলতে নিষেধ করেন। কাউকে কিছু বললে কিংবা পুলিশকে জানালে সমস্যা হবে বলে নানা হুমকি-ধমকি দেয়। নকুল অনেক আগে থেকেই একজন কুচরিত্রের লোক। ইতিপুর্বে আমাকেও কু-প্রস্তাব দিয়েছিল। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চাই। এ বিষয়ে মেয়েটি বাদী হয়ে শুক্রবার সকালে থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ১১ সেপ্টেম্বর (শনিবার) জামিনের জন্য তাকে আদালতে হাজির করা হলে জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

শিবালয় উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কুদ্দুস এ ব্যাপারে জানান, মনোরঞ্জন শীল নকুল দোষী প্রমাণিত হলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।