আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

নন্দীগ্রামে মনোনয়ন জমা দিলেন মমতা, ‘খেলা হবে গুরু-শিষ্যের’

news-image

বিধানসভা নির্বাচনে নিজের মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার নন্দীগ্রামের প্রার্থী হিসেবে হলদিয়ায় মহকুমাশাসকের দপ্তরে মনোনয়ন জমা দেন তৃণমূল নেত্রী। অর্থাৎ মমতা লড়তে যাচ্ছেন তারই ‘হাতে গড়া’ নেতা নব্য বিজেপি শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গেই।

মনোনয়ন জমা দেওয়ার একদিন আগেই নন্দীগ্রামে চলে এসেছিলেন মমতা। মঙ্গলবার থেকে সেখানেই রয়েছেন তিনি। ঘটনাচক্রে, তার প্রতিদ্বন্দ্বী শুভেন্দু অধিকারীও এ মুহূর্তে নন্দীগ্রামে রয়েছেন। সকালে সেখানে একটি সভাও করেন তিনি। সেখান থেকে মমতাকে ‘ভেজাল হিন্দু’ বলে কটাক্ষও করেন তিনি।

মনোনয়ন জমা দেওয়ার সময় মমতার সঙ্গে ছিলেন সুব্রত বক্সী এবং শেখ সুফিয়ান। নন্দীগ্রাম থেকে হেলিকপ্টারে চেপে হলদিয়ায় যান তিনি। এরপর মঞ্জুশ্রী মোড় থেকে এক কিলোমিটার পদযাত্রা করে মহকুমাশাসকের দপ্তরে পৌঁছন। এবং প্রক্রিয়া মেনে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

ভোট হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের ২৯৪ আসনে। কিন্তু আলোচনার কেন্দ্রে নন্দীগ্রাম। নবান্নের দৌড়ে নন্দীগ্রামে এবার গুরু-শিষ্যের লড়াই। তৃণমূল থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেখানে প্রার্থী হয়েছেন। আর তাকে টক্কর দিতে বিজেপি সেখানে নামিয়েছে, তারই একসময়কার শিষ্য শুভেন্দু অধিকারীকে।

মমতার কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে একসময় নন্দীগ্রামের জমি আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন শুভেন্দু। সেই শুভেন্দু দলনেত্রীর সঙ্গ ছেড়ে গত বছরের শেষ দিকে পদ্মশিবিরে নাম লিখিয়েছেন। শুক্রবার তার মনোনয়ন জমা দেওয়ার কথা। সেখানে তার হয়ে প্রচার করতে দেখা যেতে পারে নব্য বিজেপি মিঠুন চক্রবর্তীকেও। তিনিও একসময় মমতার হয়ে কাজ করতেন।

এদিকে ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ পোস্টারে ছেয়ে গেছে হলদিয়া। মহকুমাশাসকের দপ্তরের বাইরে আবেগে ভাসছে হাজার হাজার মানুষ। উঠছে ‘খেলা হবে’ স্লোগানও।

এ জাতীয় আরও খবর