আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

নৈশপ্রহরীকে হাত-পা বেঁধে হত্যা

news-image

মীরসরাইয়ে একটি স’মিলে দায়িত্বরত নৈশপ্রহরী নুরুল আমিনকে (৫৫) হাত-পা বেঁধে খুন করেছে দুর্বত্তরা।

শুক্রবার রাতে উপজেলার ১৫নং ওয়াহেদপুর ইউনিয়ন বড় কমলদহ কমরআলী রাস্তার পাশে ছোটন চৌধুরীর স’মিলে এই ঘটনা ঘটে।

রোববার সকাল ১১টায় ঘটনাস্থল থেকে হাত পা বাঁধা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে মীরসরাই থানা পুলিশ। নিহত নুরুল আমিন ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের বড়কমলদহ এলাকার দলিলুর রহমান বাড়ির মৃত আহম্মেদুর রহমানের ছেলে।

জানা যায়, শুক্রবার রাতে বড় কমলদহ এলাকায় অবস্থিত ছোটন চৌধুরীর মালিকানাধীন স‘মিলের পানির মোটর, ৩টি ট্রান্সফমারের কয়েল চুরি করার সময় নৈশপ্রহরী নুরুল আমিন বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করে। এসময় তাকে হাত পা বেঁধে হাতুড়ি ও গাছ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে চলে যায় দুর্বত্তরা।
রোবকার সকালে তার লাশ হাত পা বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এই বিষয়ে মীরসরাই থানার অফিসার ইনচার্জ মজিবুর রহমান পিপিএম বলেন, এলাকায় নুরুল আমিনের সঙ্গে কারো ঝামেলা বা শত্রুতা নেই। প্রাথমিক তদন্তে ওই এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছি স‘মিলে চুরি করতে আসা চোরের দলকে চিনে ফেলায় হাত পা বেঁধে নুরুল আমিনকে পিটিয়ে খুন করা হতে পারে। তার মাথা, পায়ে ও কানে আঘাতের চিহৃ দেখা গেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেক) প্রেরণ করা হচ্ছে।