আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

নোয়াখালীতে জুয়া খেলায় বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে বসতবাড়িতে হামলা

news-image

নোয়াখালীর সুধারামের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সড়কের ৯৩ শল্যা গ্রামে জুয়া খেলায় বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে জোরদারেরা বাহারের বসত বাড়িতে ও একটি চা দোকানে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা ও ভাঙচুর করে। পরে রাতে বাহারের বসত বাড়িতে রায়হান, রিয়াজ, সিরাজ ও সমিরের নেতৃত্বে ১০/১২ জন দেশীয় অস্ত্রদারী ও ভাড়াটি নিয়ে আবারও হামলা ও নারীদেরকে মারধর করে।

এই ঘটনায় মো: বাহার বাদী হয়ে রবিবার সকালে সুধারাম মডেল থানায় ৮ জনকে বিবাদী করে একটি এজাহার দাখিল করেছেন। এদিকে জোরদার ও ভাড়াটে সন্ত্রাসীর ভয়ে ভিক্টিমের পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। শুক্রবার রাতে ও শনিবার দুই দফায় সন্ত্রাসীরা এই হামলা ও তান্ডব চালায়। তাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে ভাড়াটে সন্ত্রাসীরা হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়।

ভুক্তভোগী বাহার জানান, ঘটনার দিন রাতে জুয়া খেলায় বাধা দিলে স্থানীয় বখাটে রায়হান, রিয়াজ, সিরাজ, ইসমাঈল ও লেকুর নেতৃত্বে ১৫/২০ জন ভাড়াটে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে হত্যার হুমকি দেয় এবং এই ঘটনায় স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তারা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে বাবুলের চা দোকানে হামলা ও ভাংচুর করে। এক পর্যায়ে আমার বসত বাড়িতে গিয়ে হামলা ও ভাংচুর চালায় এবং দরজা -জানালা কুপিয়ে তছনছ করে এবং মহিলাদেরকে মারধর ও নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কারসহ জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায়। মহিলাদের আত্ম-চিৎকারে সন্ত্রাসীরা হুমকি দিয়ে পালিয়ে যায়। পরের দিন বাড়ি থেকে মাইজদী আসার পথে সম্পদ নামের একজনকে ঘরে নিয়ে আটক রাখে। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারকে অবগত করা হয়েছে।

এস আই সুধন জুয়া খেলার ঘটনাটি নিয়ে হামলা হয়েছে বলে সত্যতা স্বীকার করেন।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: সাহেদ উদ্দিন জানান, এই ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে এবং আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।