আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

নৌকাকে হারিয়ে পুনরায় রায়পুরার মেয়র নির্বাচিত হলেন জামাল মোল্লা

news-image

নরসিংদীর রায়পুরা পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জামাল মোল্লা পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। আজ রোববার ভোট গণনা শেষে রাতে বেসরকারিভাবে এই ফল ঘোষণা করেন জ্যেষ্ঠ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মেছবাহ উদ্দিন।

এর আগে সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন রায়পুরা পৌরসভার ভোটাররা। জয়ী প্রার্থী জামাল মোল্লা মোবাইল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন। গত পৌরসভা নির্বাচেন তিনি আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়ে না পাওয়ায় বিদ্রোহী হিসেবে নির্বাচন করেন। ওই নির্বাচনে তিনি জয় লাভ করলেও বিদ্রোহী হওয়ায় দল থেকে বহিষ্কার হয়েছিলেন।
রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মেছবাহ উদ্দিন বলেন, মেয়র পদে মোবাইল প্রতীকের প্রার্থী মো. জামাল মোল্লা ৭ হাজার ৮০৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. মাহবুব আলম শাহীন পেয়েছেন ৫ হাজার ২৬১ ভোট। এ ছাড়া নারকেলগাছ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবদুল কুদ্দুস ৪ হাজার ৭৭২ ভোট, জগ প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন ১ হাজার ৬৯ ভোট ও হাতপাখা প্রতীকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী মো. শামীম মোল্লা পেয়েছেন ৩৯০ ভোট।
বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা ছাড়া মোটামুটি শান্তিপূর্ণ ও সুষ্ঠুভাবে রায়পুরা পৌর নির্বাচনে ভোট গ্রহণ হয়েছে। সকাল আটটায় ভোট গ্রহণ শুরুর পর সবগুলো কেন্দ্রে শীত উপেক্ষা করে ভোটারদের লক্ষণীয় উপস্থিত দেখা গেছে। দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোট দিয়েছেন এখানকার ভোটারেরা।

নির্বাচনসংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, পৌর নির্বাচনে মোট ভোটার ছিল ২৬ হাজার ৫১৫ জন। তাঁদের মধ্যে ভোট দিয়েছেন ১৯ হাজার ৩৪৬ জন। বাতিল ভোটের সংখ্যা ৫০টি।
নবনির্বাচিত মেয়র মো. জামাল মোল্লা জানিয়ে বলেন, ‘রায়পুরা পৌর এলাকার মানুষ আমাকে পুনরায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছেন। প্রতিটি কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা নারী-পুরুষ সব ভোটারদের আমি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই। এই পৌরসভার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার চেষ্টা অব্যাহত রাখব আমি।’

এ জাতীয় আরও খবর