আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

পরিতোষের কষ্টের জীবনে সুখ ছিল না কোনোকালেই!

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের পরিতোষ মোদকের পৈতৃক পেশা ছিল মিষ্টান্ন তৈরি ও বিক্রি করা। খুব ছোটবেলায় বাবাকে হারিয়ে পেশা হিসেবে বেছে নেন মোয়া-মুড়কি, বাদাম, ছোলা বিক্রির কাজ। বিদ্যালয়ে গিয়ে পড়াশোনা ভাগ্যে জোটেনি। বয়স আর কতো, এনআইডি কার্ডের হিসেবে ৩৭ বছরের যুবক। এই বয়সেই পরিতোষের দেখা হয়ে গেছে পৃথিবীর নির্মমতা। তার জীবনের প্রতিটি পরতে পরতে সুখের বদলে আছে কেবলই কষ্টগাথা।

ডান পা ভেঙে কোনো কাজ করতে পারেন না। বাধ্য হয়ে ভিক্ষাবৃত্তি করে জীবীকা নির্বাহ করেন। চোখে মোটা চশমা লাগিয়েও ঝাপসা দেখেন। চোখের ডাক্তার বলে দিয়েছেন অপারেশন করতে হবে।

চার সন্তানের জনক পরিতোষ। কিন্তু সন্তান দুটো আর তার নিজের কাছে নেই। দত্তক দিয়ে দিয়েছেন। কারণ তার স্ত্রী মনিকা মোদক মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন। স্ত্রীকে জিঞ্জির দিয়ে বেঁধে রাখলে ঘরের মধ্যে মল-মূত্র ত্যাগ করেন। ছেড়ে দিলে যেখানে ইচ্ছা চলে যান। সন্তানদের কোনো খোঁজ-খবর রাখেন না। অন্যদিকে আছে খাবারের কষ্ট।

এতসব কষ্টের মাঝে আরেক কষ্ট, তার নিজের কোনো ঘরবাড়ি নেই। একটি দুর্ঘটনায় পা ভেঙে যাওয়ার পর ঘরসহ ভিটে বিক্রি করে চিকিৎসা করেন। বর্তমানে চেয়ে থাকেন অন্যের বাড়িতে।

ভিক্ষা করতেও লজ্জা করে বলে সব দিন ভিক্ষা করতে বের হন না। যে কারণে ওইদিন স্ত্রীকে নিয়ে উপস থাকতে হয়। পরিতোষের স্ত্রীর ‘উৎপাতে’ বাড়ির মালিক প্রায়ই বাড়ি ছাড়ার জন্য তাগাদা দেন।

কিন্তু পরিবার নিয়ে এতো বড় পৃথিবীর বুকে পরিতোষের যাওয়ার মতো কোনো স্থান নেই। স্ত্রীর পক্ষেরও কেউ নেই যারা খোঁজ-খবর নেবেন। হতাশ পরিতোষ এখন কেবলই চোখের জল ফেলে দিন-রাত কাটাচ্ছেন।

তার নিজ ইউনিয়নের জনপ্রতিনিধিরা কোনো দিন খবর নেওয়া তো দূরে থাক, আত্মীয়-স্বজনই এখন আর পরিতোষের কোনো খবর রাখেন না।

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের একটি ঘরের জন্য সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে ধর্না দিলেও তিনি সময়মত না জানানোয় আর কিছু করতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য মো. জাহেদ মিয়া জানান, পরিতোষের ঘরবাড়ি নেই, এই কথাটি সত্য। তিনি পরিবার নিয়ে খুবই অসহায় অবস্থায় আছেন। তাকে যদি সরকারিভাবে একখানা ঘরের ব্যবস্থা করে দেওয়া যায় তাহলে খুবই উপকার হবে।

এ ব্যাপারে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার পদ্মাসন সিংহ বলেন, পরিতোষ মোদকের কষ্ট দূর করার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করবো। সামনের দিনে আবার যদি গৃহহীনদের জন্য ঘর আসে তাহলে অবশ্যই তার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। আমরা তার পরিবারের পাশে খুবই আন্তরিকভাবে থাকার চেষ্টা করবো।

এ জাতীয় আরও খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে ৫৮ কেজি ওজনের কেক কাটলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন ১৮ চেয়ারম্যান

‘প্রশাসনে বাংলাদেশি যেমন আছে, অসংখ্য পাকিস্তানিও আছে’

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘের আহ্বান

শিশু শ্রমে নির্মাণ হচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর

পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময়

বিএনপি-জামায়াত বা তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পীরগঞ্জে জেলে পল্লিতে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

উপকূলে ৩নং সতর্ক সংকেত, দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন শিশুকে যেন রাসেলের ভাগ্যবরণ করতে না হয়: প্রধানমন্ত্রী

ফতুল্লায় মিশুক চালককে হত্যার দুই ঘাতক গ্রেপ্তার