আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

পুলিশের জবাবদিহি কোথায়

ময়মনসিংহের মদনে মামলার আসামির সঙ্গে কোর্ট পুলিশের এএসআইয়ের কথোপকথনের যে অডিওক্লিপ ছড়িয়ে পড়েছে তা উদ্বেগজনক বললেও কম বলা হয়। বিচারাধীন মামলার আসামির সঙ্গে পুলিশের এমন আর্থিক লেনদেনের বিষয়টি সামনে এলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর সাধারণ মানুষের আস্থা রাখার আর কোনো কারণ থাকে না। দেশ রূপান্তরে সোমবার প্রকাশিত এই ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন ভাবার কারণ নেই। এ রকম অর্থের বিনিময়ে আসামিকে মামলা থেকে মুক্তি প্রদান কিংবা টাকার বিনিময়ে নিরীহ কাউকে আসামি করার খবর প্রায়ই গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। অনেক ক্ষেত্রে ভুক্তভোগী ও তার পরিবার অর্থের বিনিময়ে পুলিশের সঙ্গে মীমাংসা করে। আবার অনেকক্ষেত্রে এসব পরিবার আইনি কোনো কর্তৃপক্ষকে জানাতেও সাহস পায় না।

মদনের এই ঘটনা এই সত্যই আমাদের সামনে তুলে ধরে যে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত বাহিনীর কতিপয় সদস্য রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভূমিকায় নেমেছেন। মামলার অভিযোগ তদন্তের নামে বিষয়গুলো ধামাচাপা দেওয়া হয়। অনেক ক্ষেত্রে তদন্ত কাজেও অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া যায়। প্রকাশিত খবরে জানা যায়, সরকারের কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচির ৫০০ বস্তা গম পাচার মামলার অভিযোগপত্র (চার্জশিট) তদন্ত কর্মকর্তা নেত্রকোনা মদন থানার কোর্ট পুলিশের কাছে জমা দিলেও গত আট মাসে তা আদালতে উপস্থাপন করা হয়নি। মামলার চার্জশিটভুক্ত একমাত্র আসামি মদন উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বেলায়েত হোসেন বিল্লালের সঙ্গে মদন থানার কোর্ট পুলিশের এএসআই সামছুলের আর্থিক লেনদেন এবং সখ্য এই ঘটনার পেছনের কারণ। বেলায়েতের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে চার্জশিট আটকে রেখেছেন এএসআই সামছুল। আদালত বেলায়েতের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করলেও তা এক সপ্তাহ আটকে রাখার প্রতিশ্রুতি দেন সামছুল। আসামি বেলায়েত ও এএসআই সামছুলের কথোপকথনের অডিও রেকর্ড শোনার পর পুলিশের প্রতি যে বিচারপ্রার্থীদের আস্থা সংকটে পড়বে তাতে সন্দেহ নেই।

অভিযুক্ত বেলায়েত ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি এবং গ্রামীণ হতদরিদ্রদের জন্য সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি দরের চালের পরিবেশক। উপজেলার খাদ্যগুদাম থেকে সরকারি চাল এনে মদন থানার কাইটাইল ইউনিয়নের ৩৫৯টি দুস্থ পরিবারকে এক মাস পরপর ৩০ কেজি করে চাল বিতরণ করে থাকেন। কিন্তু অভিয়োগ রয়েছে বেলায়েতের গুদামে রাতের আঁধারে সরকারের ভালো চালের বস্তা বদল করে পচা দুর্গন্ধযুক্ত চাল বস্তায় ভরে সেসবই দুস্থদের মধ্যে বিতরণ করা হচ্ছিল। এভাবে গত কয়েক বছরে কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন বেলায়েত। ২০২০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে নেত্রকোনার মদন থানার মুতিয়াখালী বাজার থেকে কাজের বিনিময়ে খাদ্য কর্মসূচির আওতায় সরকারি বরাদ্দের ৫০০ বস্তা গম (প্রতি বস্তায় ২৫ কেজি) পাচারের সময় গমসহ চার শ্রমিককে আটক করে মদন থানা পুলিশ। ওই ঘটনায় এসআই মোশাররফ হোসেন ফরাজী বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইন-এর ১৯৭৪ এর ২৫ (১) ধারায় মামলা করেন। মামলাটির তদন্ত শেষে চলতি বছর ১২ জানুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) জমা দেন নেত্রকোনা জেলা গোয়েন্দা শাখার এসআই মো. সাজ্জাদ হোসেন। সেখানে একমাত্র আসামি করা হয় বেলায়েত হোসেন বিল্লালকে।

আসামি বেলায়েত হোসেন বিল্লালকে সুবিধা দিতে কোর্ট পুলিশের এএসআই সামছুলের আর্থিক লেনদেন, আসামিকে সহযোগিতা করার পেছনের কারণ কী, অর্পিত দায়িত্ব পালন না করা উদ্দেশ্যপূর্ণ ছিল কি-না তা খুঁজে বের করতে হবে। কেননা, অভিযোগ উঠেছে যে তারা অর্থের বিনিময়ে প্রধান অভিযুক্ত বেলায়েত হোসেন বিল্লালকে সুযোগ করে দিয়েছেন। অর্থাৎ পুলিশের এই সদস্য ন্যায়বিচারের পক্ষে না দাঁড়িয়ে সরকারি মালামাল আত্মসাতের অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যক্তির পক্ষ নিয়েছেন ব্যক্তিগত ও অনৈতিক স্বার্থতাড়িত হয়ে যা অত্যন্ত গুরুতর অভিযোগ।

অতীতের বিভিন্ন ঘটনায় দেখা গেছে পুলিশের বিরুদ্ধে এ ধরনের গুরুতর অভিযোগের যে তদন্ত হয়, সেসব তারা নিজেরা করেছেন। অধিকাংশ সময়ে দেখা যায়, এসব ক্ষেত্রে অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। নৈতিক স্খলনের গুরুতর অভিযোগে ফৌজদারি মামলা দায়ের না করে শুধু সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত গ্রহণযোগ্য হতে পারে না। এজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্তে পৃথক শক্তিশালী ও স্বাধীন তদন্ত কমিশন গঠন করা যেতে পারে। নইলে জনগণের কল্যাণে সরকারের গৃহীত সেবা ও নিরাপত্তামূলক কর্মসূচি থেকে জনসাধারণ বঞ্চিত হবে। অন্যদিকে, ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের সহযোগী সংগঠনগুলোর তৃণমূল পর্যায়ের নেতারাও যে কীভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন মদনের এই যুবলীগ নেতার চাল-কা- তারই সাক্ষ্য দেয়। তাই রাজনীতিতে ক্ষমতাসীনদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের এমন জোটবদ্ধ অপরাধের বিষয়ে সরকারকে সচেতন হতে হবে। মদনের ঘটনার যথাযথ নিরপেক্ষ তদন্ত ও অভিযুক্তদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করা গেলেই অপরাধীদের প্রতি কঠোর বার্তা দেওয়া সম্ভব হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে ৫৮ কেজি ওজনের কেক কাটলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন ১৮ চেয়ারম্যান

‘প্রশাসনে বাংলাদেশি যেমন আছে, অসংখ্য পাকিস্তানিও আছে’

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘের আহ্বান

শিশু শ্রমে নির্মাণ হচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর

পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময়

বিএনপি-জামায়াত বা তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পীরগঞ্জে জেলে পল্লিতে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

উপকূলে ৩নং সতর্ক সংকেত, দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন শিশুকে যেন রাসেলের ভাগ্যবরণ করতে না হয়: প্রধানমন্ত্রী

ফতুল্লায় মিশুক চালককে হত্যার দুই ঘাতক গ্রেপ্তার