আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ফেরিস্বল্পতায় যানবাহনের দীর্ঘ সারি, ভোগান্তি

news-image

রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ও মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া নৌপথে ঘাট ও ফেরিস্বল্পতার কারণে যানবাহন পারাপার ব্যাহত হচ্ছে। ১০ দিন আগেও ২০টি ফেরি চলাচল করেছে। ফেরিডুবি ও যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে বর্তমানে ১৫টি ফেরি চলাচল করছে। এ কারণে দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাটে যানবাহনের চাপ বেড়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দৌলতদিয়া ঘাটে অন্তত চার কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়।
বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) আরিচা কার্যালয় সূত্র জানায়, দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া নৌপথে পর্যায়ক্রমে ছোট-বড় ২২টি ফেরি চালু রাখা হয়। এর মধ্যে গত ২৭ অক্টোবর পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাটে পাটাতন ছিদ্র হয়ে একটি ফেরি ডুবে যায়। এখনো ফেরিটি তোলা সম্ভব হয়নি। ওই ঘাটও ব্যবহার করা যাচ্ছে না। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এই রুটে গত বুধবার থেকে রো রো (বড়) ফেরি বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান ও মতিউর রহমান ডকইয়ার্ডে পাঠানো হয়। এর আগে ২৮ অক্টোবর শাহ আলী ও ভাষাশহীদ বরকত নামক আরও দুটি রো রো ফেরি ডকইয়ার্ডে পাঠানো হয়। এ ছাড়া গতকাল সকালে যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে রো রো ফেরি খানজাহান আলী এবং ইউটিলিটি ফেরি বনলতা অচল হয়ে পড়ে। গতকাল ১৫টি ফেরি চলাচল করে।

ফেরিসংকটে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে আসা ঢাকামুখী বিভিন্ন ধরনের যানবাহনগুলোকে দৌলতদিয়া ঘাটে এসে আটকে থাকতে হচ্ছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। নৈশ কোচগুলোর পার হতে সময় লাগছে ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা। আর পণ্যবাহী গাড়ি পার হতে সময় লাগছে দুই থেকে তিন দিন।

গতকাল সকালে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ ভবন থেকে ঢাকামুখী গাড়ির সারি ফেরিঘাট পর্যন্ত। প্রায় চার কিলোমিটার জুড়ে লম্বা লাইনে অসংখ্য গাড়ি রয়েছে। এর মধ্যে ফেরিঘাট এলাকার প্রায় তিন কিলোমিটার জুড়ে দুই লাইনে গাড়ি রয়েছে।

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া থেকে বুধবার সন্ধ্যা সাতটায় সোনারতরি নামক পরিবহন যাত্রীদের নিয়ে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়। রাত ১১টায় ফেরিঘাট থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরে যানজটে পড়ে। বাসটির চালক শেখ আবদুল বলেন, তাঁদের বাসটি ৯ ঘণ্টা পর ফেরিঘাটের কাছে এসেছে।

যশোর থেকে আসা পণ্যবাহী গাড়ির চালক আলাউদ্দিন পাঠান বলেন, তিনি গত মঙ্গলবার দুপুরে গোয়ালন্দ মোড়ে আহ্লাদিপুরে পৌঁছান। মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যরাত থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত প্রায় ৩০ ঘণ্টার বেশি ফেরিঘাট সড়কেই পড়ে আছেন। তাঁর মতো অপচনশীল পণ্যবাহী গাড়ি এভাবেই আটকে থাকছে।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (মেরিন) আবদুস সাত্তার বলেন, বর্তমানে ১৫টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। এ ছাড়া বাংলাবাজার ও শিমুলিয়া রুটে ফেরি বন্ধ থাকায় ওই রুটের সব যানবাহন দৌলতদিয়া ও পাটুরিয়া ঘাট দিয়ে পারাপার হওয়ায় বাড়তি গাড়ির চাপ পড়ছে, যে কারণে যানজট তৈরি হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে ফেরি বাড়ানোর পরিকল্পনা করা হচ্ছে।