আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

‘বাংলাদেশেই ভ্যাকসিন উৎপাদন হবে, আমরা ব্যবস্থা নিয়ে রেখেছি’

news-image

ভ্যাকসিনকে গোটা বিশ্বের জন্য সার্বজনীন পণ্য ঘোষণা করে সব দেশের জন্য ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করার বিষয়ে আন্তর্জাতিক মহলের সঙ্গে কাজ করেছেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একইসঙ্গে বাংলাদেশেও করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদনের জন্য সরকার ব্যবস্থা নিয়ে রেখেছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের স্বাস্থ্যমন্ত্রী (জাহিদ মালেক) সবশেষ যে রিপোর্ট আমাকে দিয়েছেন, তাতে দেখেছি দেশে ভ্যাকসিন উৎপাদন নিয়ে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছি। দেশে ভ্যাকসিন উৎপাদনের জন্য সব ব্যবস্থা নিয়ে রেখেছি। আমি আশাবাদী, আমরা শিগগিরই ভ্যাকসিন উৎপাদন করতে পারব।

সোমবার (৪ অক্টোবর) বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী গণভবন প্রান্ত থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত রয়েছেন।

এর আগে, যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষ করে ওয়াশিংটন ডিসি থেকে ফিনল্যান্ডের হেলসিঙ্কি হয়ে শুক্রবার (১ অক্টোবর) রাতে দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্র সফর নিয়েই মতবিনিময় করতেই এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করেছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

সংবাদ সম্মেলনে এক গণমাধ্যমকর্মীর প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ‘দুর্ভাগ্যের বিষয় যে মহামারি দেখা দিলে একটি শ্রেণি আর্থিক লাভ-লোকসানের দিকে যতটা তাকায়, মানুষের দিকে ততটা তাকায় না। কেবল আমাদের দেশেই না, আন্তর্জাতিক পর্যায়েও এ ধরনের গোষ্ঠী রয়েছে। এ কারণেই আমি ভ্যাকসিনকে সার্বজনীন একটি পণ্যে পরিণত করার পক্ষে কথা বলেছি যেন এই ভ্যাকসিন সবাই পায়।’

তিনি বলেন, ‘এখনও কিন্তু অনেক দেশ আছে যারা ভ্যাকসিন পায়নি। অনেক দেশ এক ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছে, কিন্তু দ্বিতীয় ডোজ পায়নি। এ সব দেশের কথা আমি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বলেছি। আমি বলেছি, সবার জন্য ভ্যাকসিনের ব্যবস্থা করতে হবে।’

দেশে ভ্যাকসিন উৎপাদনের সম্ভাবনার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ ভ্যাকসিন তৈরি করতে প্রস্তুত। আমরা ১০ একর জায়গা নিয়ে রেখেছি। গাভি (বৈশ্বিক ভ্যাকসিন জোট) আছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আছে। তাদের সঙ্গে আলোচনা চলছে। আমরা বলেছি, আমরা ফর্মুলা চাই। আমরা ফর্মুলা পেলে দেশেই ভ্যাকসিন প্রস্তুত করতে পারব।’

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি কালকেই (গতকাল রোববার) যে রিপোর্ট দিয়েছেন, তাতে তিনি ইতিবাচক সাড়া পেয়েছেন। তাদেরও আগ্রহ আছে। ফলে আমরা ভ্যাকসিন উৎপাদনের বিষয়ে আশাবাদী। আমরা নিজেরাই ভ্যাকসিন তৈরি করব।’

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শুরুতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। এসময় গণভবন প্রান্তে প্রধানমন্ত্রীর দুই পাশে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে এম আবদুল মোমেন ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

গণভবনে প্রান্তে সংবাদ সম্মেলন পরিচালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম। সেখানে কয়েকজন গণমাধ্যমকর্মী উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও তেজগাঁও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় প্রান্তেও উপস্থিত ছিলেন গণমাধ্যমকর্মীরা। দুই স্থানে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছ থেকেই প্রশ্ন নিয়ে উত্তর দেন সরকারপ্রধান।

এ জাতীয় আরও খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে ৫৮ কেজি ওজনের কেক কাটলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন ১৮ চেয়ারম্যান

‘প্রশাসনে বাংলাদেশি যেমন আছে, অসংখ্য পাকিস্তানিও আছে’

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘের আহ্বান

শিশু শ্রমে নির্মাণ হচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর

পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময়

বিএনপি-জামায়াত বা তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পীরগঞ্জে জেলে পল্লিতে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

উপকূলে ৩নং সতর্ক সংকেত, দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন শিশুকে যেন রাসেলের ভাগ্যবরণ করতে না হয়: প্রধানমন্ত্রী

ফতুল্লায় মিশুক চালককে হত্যার দুই ঘাতক গ্রেপ্তার