আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

বাগেরহাটে তালের শাঁস কাটাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১

news-image

বাগেরহাটে সদর উপজেলার ডেমা গ্রামে তালের শাঁস কাটাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষে সাবেক ইউপি সদস্য ফজলু তরফদার (৬০) নামে একজন নিহত হয়েছেন। রবিবার (১৬ মে) সন্ধ্যায় ডেমা মিঠাপুকুর দক্ষিণপাড় এলাকায় এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বাগেরহাট সদর উপজেলার ডেমা গ্রামে রবিবার সন্ধ্যার দিকে আশ্রাব তরফদারের ছেলে ফজলু তরফদার বিরোধপূর্ণ জমিতে তালগাছের তালের শাঁস কাটার সময় প্রতিবেশী ইয়াকুব গাজীর ছেলে দুলু গাজী বাধা দেয়। বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে মারধর শুরু হয়। এসময় ফজলু তরফদারের দায়ের কোপে দুলু গাজী আহত হয়।

তৎক্ষনাত দুলু গাজীর লোকজন এসে ফজলু তরফদারের উপর হাতুড়ি দিয়ে মাথায় আঘাত করে ফেলে রেখে চলে যায়। পরে ফজলু তরফদারের পরিবারের লোকজনেরা তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ফজলু তরফদারকে মৃত ঘোষণা করেন। দুলু গাজীর অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে তার পরিবারের লোকজন সূত্রে জানা গেছে।
নিহতের ছেলে গিয়াস তরফদার বলেন, স্থানীয় দেলোয়ার গাজির পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে আমাদের একটি জমি নিয়ে গ্যাঞ্জাম ছিলো। আমার বাবা রবিবার বিকেলে জমির একটি তালগাছের তালের শাঁস কাটতে গেলে দেলোয়ার গাজী ও তার ছেলে আব্দুল্লাহ গাজীসহ আরো কয়েকজন বাধা দেয়। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে দেলোয়ার গাজী, ছেলে আব্দুল্লাহ গাজীর ও তাদের সহযোগীদের হামলায় আমার বাবা মারা যান।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর শাফিন মাহামুদ জানান, বাগেরহাট সদর উপজেলার ডেমা গ্রামে তালের শাঁস কাটাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ফজলু তরফদার নিহত হয়। এসময় দুলু গাজী আহত হয়। আহত দুলু গাজীকে খুলনা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।