আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

বাসযাত্রীর কোমরে ছিল এক কেজির বেশি সোনা

news-image

যশোর সদর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস থেকে সোনা চোরাচালানকারী এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) আজ সোমবার সকালে উপজেলার যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের চাঁচড়া চেকপোস্ট এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে। এ সময় তাঁর কোমর থেকে ১০টি সোনার বার উদ্ধার করেছে বিজিবি। ওই সোনা ভারতে পাচারের জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। উদ্ধার করা সোনার বারের ওজন ১ কেজি ১৬৩ গ্রাম, যার বাজারমূল্য প্রায় ৬৭ লাখ টাকা বলে বিজিবি সূত্র জানিয়েছে।
গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম সুমন মিয়া (৩০)। তিনি যশোরের বেনাপোল বন্দর থানার সাদিপুর গ্রামের আবদুল জব্বার মিয়ার ছেলে।
বিজিবি জানায়, সোমবার সকালে সুমন মিয়া নামের ওই ব্যক্তি যশোর থেকে একটি যাত্রীবাহী বাসে বেনাপোলের দিকে যাচ্ছিলেন। সকাল নয়টার দিকে বাসটি যশোর সদর উপজেলার চাঁচড়া পুলিশ চেকপোস্ট এলাকায় পৌঁছায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বেনাপোলের আমড়াখালী চেকপোস্টে কর্মরত হাবিলদার মো. নুরুল ইসলামের নেতৃত্বে বিজিবি সদস্যরা এ সময় বাসটিকে থামান। এরপর বাসে থাকা যাত্রী সুমন মিয়াকে আটক করা হয়। তাঁর শরীর তল্লাশি করে কোমরের মধ্যে প্যান্টে বিশেষভাবে লুকিয়ে রাখা অবস্থায় ১০টি সোনার বার উদ্ধার করা হয়। ওই সোনা ভারতে পাচারের জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন বলে আটক ব্যক্তি জানিয়েছেন।
যশোর ৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. সেলিম রেজা বলেন, সুমন মিয়ার বিরুদ্ধে যশোর কোতোয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। তাঁকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। উদ্ধার করা সোনা থানায় জমা দেওয়া হয়েছে।