আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

বিজয়ের মাসকে কলঙ্কিত করার টার্গেট নিয়েছে বিএনপি : নানক

news-image

বিএনপি দেশের জন্য একটি বোঝা উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, এই দলটি বিজয়ের মাসকে কলঙ্কিত করতে চায়। তারা এখন সেই টার্গেট নিয়েছে। বিভিন্ন সময় হাঁক-ডাক দেয়।

আজ শুক্রবার কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মৌলবাদের বিরুদ্ধে ছাত্রসমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। জেলার পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লীগকে দিনক্ষণ দিয়ে কোনো লাভ নেই উল্লেখ করে নানক বলেন, মনে নাই? আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আপনাদেরকে ক্ষমতা থেকে নামিয়ে ছিলাম। জনগণ আর আপনাদেরকে ক্ষমতায় বসতে দেয়নি, দেবেও‌ না। তাই একবার বলে রোজার ঈদের পরে, আরেকবার বলে কোরবানি ঈদের পরে, এখন আবার তারিখ দিয়েছে ডিসেম্বর মাস।

তিনি বলেন, এর মূল কারণ, বিজয়ের মাসকে কলঙ্কিত করার জন্যই তারা টার্গেট করেছে। কারণ এই মাস মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিনিধিত্ব করে। তারা আবার সেই পাকিস্তানি পরাজিত শক্তিকে প্রতিষ্ঠিত করতেই আবার বাংলার স্বাধীনতার বিজয়ের মাসকেই বেছে নিয়েছে। কিন্তু বাংলার মাটিতে তা আর হতে দেওয়া হবে না।

বিএনপির মহাসচিবের উদ্দেশে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্য বলেন, এই যে দিন-তারিখ দেন এগুলো আর ভালো লাগে না। বরিশাল জেলায় ‘চর’ দখলের জন্য এক সময় দিন-তারিখ দেওয়া হতো। বিএনপি রাজনীতি করতে নামেনি, তারা চর দখল করতে নেমেছে। তারা এখন মাহুত ছাড়া পাগলা হাতি। এ দেশের জন্য একটি হুমকি।

আগামী নির্বাচনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে নানক বলেন, খালেদা জিয়া দণ্ডিত আসামি। আইনের দৃষ্টিতে তিনি নির্বাচন করতে পারেন না। তাদের দলের আরেকজন (তারেক রহমান) লন্ডনে বিশাল এক বাড়িতে থাকে। বাংলাদেশ থেকে লুট করা অর্থ নিয়ে সেখানে বিলাসবহুল জীবনযাপন করে। বিএনপি কিছু অর্থ উপার্জনের জন্য বিভিন্ন সময় হাঁক-ডাক দেয়।

চট্টগ্রামে বিএনপির গণসমাবেশের প্রসঙ্গে ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নানক বলেন, বিএনপি নাকি একটি সমাবেশ করেছে। সারা দেশ থেকে নাকি তাদের নেতাকর্মী সেই সমাবেশে যোগ দিয়েছে। তারা যেটাকে সমাবেশ বলছে, মানুষ হাসে। আওয়ামী লীগের অন্য কোনো সহযোগী সংগঠনের দরকার নেই, বাংলাদেশ ছাত্রলীগই এর চেয়ে বড় সমাবেশ করতে পারে।

বিগত দিনের সরকারের উন্নয়ন তুলে ধরে সাবেক এই প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এগিয়ে যাবে। স্বপ্নের পদ্মা সেতু হয়েছে, মেট্রোরেল হয়েছে, উন্নয়নের দেশের চিত্র ফুটে উঠেছে। দেশের উন্নয়ন আর কেউ ঠেকাতে পারবে না।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেনের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক মারুফ আদনানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন- কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল মোস্তফা, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, কক্সবাজারের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল ও আশেক উল্লাহ রফিক, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

এ জাতীয় আরও খবর

অভিযানের খবরে ড্রেজার রেখে পালালেন অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা

আনোয়ারায় বালু ব্যবসায়ীকে জরিমানা

মাটিকে গুরুত্ব দিয়ে খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

নাশকতা মামলায় বিএনপির বদলে আ.লীগ নেতা আটক পুলিশের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ দলীয় নেতাকর্মী

ধোপাজান নদীর বালু-পাথরের টাকা সিন্ডিকেটের পকেটে

পদ্মার চরে মাটি-বালু লুট চলছেই

শঙ্খ নদী থেকে বালু উত্তোলন, জরিমানা

চাঁঁদপুরের মেঘনা পাড়ের মাটি কাটায় ৪ জনকে দুই লাখ টাকা জরিমানা

নালিতাবাড়ীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, জরিমানা আদায়

টাঙ্গাইলে চায়নার ডেইরি ফিডের জন্য নিশ্চিহ্ন হচ্ছে জমি ও শতাধিক বাড়ি

আমরা উন্নয়ন করি, আর বিএনপি মানুষ খুন করে: প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রামে ২৯ প্রকল্পের উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর