আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

বিদ্যালয় আছে, ক্লাসরুম নেই!

news-image

করোনার কারণে দীর্ঘদিন স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকার পর আগামী ১২ সেপ্টেস্বর থেকে সারা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাস-পরীক্ষা চালুর ঘোষণা করেছে সরকার। ঘোষণা আসার পর থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে জোরেশোরে চলছে ধোয়া-মোছার কাজ। আর এতে জয়পুরহাটের কালাইয়ে শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক, শিক্ষকসহ চার শতাধিক শিক্ষার্থীর মাঝে আনন্দের বদলে দেখা দিয়েছে হতাশা।

তারা সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী ক্লাস করতে পারবে কিনা সে নিয়ে শঙ্কায় আছে। তবে বিদ্যালয় যথাসময়ে খোলা রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারা ক্লাস করার প্রচেষ্টা করছে এমনটিই দাবি কর্তৃপক্ষের।

জানা গেছে, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর জয়পুরহাটের অধীনে শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ে শ্রেণি কক্ষ তৈরি না করে পুরনো পাঁচটি শ্রেণিকক্ষ হিসেবে ব্যবহার হওয়া মাটির ঘর ভেঙে ফেলা হয়। চলতি বছরের ২৩ মে চারতলা ভিতবিশিষ্ট একতলা একাডেমিক ভবন নির্মাণকাজের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন সংসদ সদস্য, সরকারদলীয় হুইপ এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

এদিকে বৃহস্পতিবার শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে, নির্মাণাধীন একতলা একাডেমিক ভবন কাজের জন্য ইট, বালু, সিমেন্ট, রড, মাটির স্তূপ, কাঠের ব্যবহৃত লোহার পেরেকসহ ইত্যাদি মাঠে রাখা আছে।

শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের কয়েক শিক্ষার্থী জানায়, অনেক দিন পর স্কুল খুলে দেওয়ার কথা শুনে আনন্দিত হলেও এখন পর্যন্ত শ্রেণিকক্ষ তৈরি না হওয়ায় তারা শঙ্কিত।

শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক শিক্ষক জানান, সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে তারা ক্লাস করাতে চাইলেও শ্রেণিকক্ষ না থাকায় ক্লাস করাতে পারবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। এখন পর্যন্ত শ্রেণিকক্ষ তৈরি করার জন্য কোনো বিকল্প ব্যবস্থাও নেওয়া হয়নি বলেও জানান তারা।

এ বিষয়ে শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন জানান, সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী বিদ্যালয় যথাসময়ে খোলা রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করাতে পারবেন বলে তিনি আশা করছেন।

কালাই উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কাজী মো. মনোয়ারুল হাসানকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি মিটিংয়ে থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

কালাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা টুকটুক তালুকদার জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই, খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন জানান, শান্তিনগর উচ্চ বিদ্যালয়ে শ্রেণিকক্ষ সংকট থাকার বিষয়টি তার জানা নেই। তবে অতিদ্রুত প্রয়োজনমতো ক্লাসরুম তৈরি করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাস করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।