আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

ভোটে হেরে সাবেক মেম্বারের কাণ্ড!

বগুড়ার শেরপুরের খামারকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হেরে জনসাধারণের চলাচলের সরকারি রাস্তা বন্ধ করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে এক মেম্বার প্রার্থীর বিরুদ্ধে।
গত ১১ নভেন্বর দ্বিতীয় দফায় অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে জিততে না পেরে এই কাণ্ড করেন তিনি।
অভিযুক্ত এনামুল হক রানা এর আগে খামারকান্দি ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য ছিলেন।
জানা গেছে, এনামুল হক রানা গত ১১ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় ইউপি নির্বাচনে শেরপুর উপজেলার ৩নং খামারকান্দি ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। কিন্তু ভোটে তিনি হেরে যান।
এর পর ক্ষোভে রানা তার বাড়ির পাশের সরকারি রাস্তার মাঝে ঘর নির্মাণ করে মানুষের চলাচলের পথ বন্ধ করে দেন।
ঘর নির্মাণের জায়গাটি খামারকান্দি মৌজার মালিকানা রেকর্ড শর্তে বগুড়া জেলা প্রশাসকের নামে ১নং খাস খতিয়ানভুক্ত। এ বিষয়ে গ্রামবাসী বগুড়া জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
মাগুড়ার তাইর গ্রামের আব্দুল ওয়াদুদ, আব্দুস সালাম, গোলাম হোসেন, রুবেল হোসেন, রিপন মিয়া, আব্দুল হামিদ, আব্দুর রউফ, আব্দুল হাকিম, ফিরোজ মোল্লা ও সাইফুল ইসলাম গত ২১ নভেম্বর এই অভিযোগ করেন।
এ ছাড়া অভিযোগের অনুলিপি সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও দপ্তরে পাঠানো হয়েছে।
এ বিষয়ে সাবেক ইউপি সদস্য রানা জানান, আমাকে ভোট না দেওয়ার কারণে আমি রাস্তা বন্ধ করেছি। আমি সরকারি দলের নেতা। দলীয়ভাবে ওই রাস্তাটি আমি মাটি ভরাট করে চলাচলের উপযোগী করেছি। তার পরও আমাকে কেন ভোট দেয়নি।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ময়নুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।