আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

মানিকগঞ্জে নিষিদ্ধ পলিথিন আটক, হাইওয়ে পুলিশের দেয়া তথ্যে রহস্যের গন্ধ

news-image

সুরেশ চন্দ্র রায়, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:মানিকগঞ্জের বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ নিষিদ্ধ পলিথিন বোঝাই পাটুরিয়া গামী যশোর ট-১১-২৯৬৪ নম্বরের একটি ট্রাক আটক করেছে। এ সময় ট্রাকের চালক শাহাদৎ হোসেন (৪২), সহকারী শরিফুল ইসলাম(২৪) ও জব্দকৃত পলিথিনের মালিক পক্ষের লোক রাশেদ ফরাজি (২২)-কে আটক করা হয়। শনিবার এ ট্রাক ও লোক আটক করা হয়। আটককৃত এ পলিথিনের পরিমান ও মূল্য নিয়ে বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ভিন্ন ভিন্ন সময় ভিন্ন ভিন্ন তথ্য দিচ্ছেন। যা নিয়ে সৃষ্টি হচ্ছে সন্দেহ।
পলিথিন আটকের বিষয়টি স্বীকার করে বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ইনচার্জ বাসুদেব সিনহা প্রতিবেদককে জানান, জব্দকৃত পলিথিনের পরিমান ৩ হাজার কেজি। যার বাজার মূল্য আনুমানিক ৯০ হাজার টাকা। বিকেল নাগাদ জানানো হয়, এর পরিমান ৭ টন এবং বাজার মূল্য ৩ লক্ষ টাকা। দোকানদারদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এর বাজার মূল্য প্রতি কেজি ২৪০-২৫০ টাকা। এ হিসেব অনুযায়ী ৭ টন পলিথিনের বাজার মূল্য প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায়, জেলা পুলিশের এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা আটককৃত ট্রাকটির বিষয়ে জোর তদবির চালান। কিন্ত বিষয়টি গণমাধ্যম কর্মীদের নজরে আসলে তার তদবির ফসকে যায়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পলিথিন ব্যবসায়ী জানান, আটককৃত পলিথিনের পরিমান ছিল ১১ টন। এগুলো ঢাকার দুই ব্যবসায়ী মিশুর ও মিরাজ ট্রাকযোগে ফরিদপুরের উদ্দেশ্যে পাঠাচ্ছিলেন।
ফাঁড়ির ইনচার্জ আরো জানান, এস,আই আরিফুর রহমানের নেতৃত্বে পলিথিন বোঝাই ট্রাক ও তিনজনকে আটক করা হয়। পরে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ (সংশোধন) আইন ২০১০ এর ১৫(১) টেবিলের ৪(ক) ও (খ) ধারায় মামলা করা হয়েছে। এ মামলায় ঝালকাঠি জেলার নলসিটি উপজেলার সেকেন্দার আলীর ছেলে মিরাজ হোসেন (৩৫)-কে পলিথিনের মালিক দেখানো হয়েছে।