আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

মুসলমানদের ভাষায় এটার নাম ইয়া নাফসি: শামীম ওসমান

news-image

করোনার ভয়াবহতা তুলে ধরে নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা -সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, করোনাকাল চিনিয়েছে আমরা কতটুকু স্বার্থপর। মুসলমানদের ভাষায় এটার নাম হলো ইয়া নাফসি।

মঙ্গলবার দুপুরে শহরের খানপুরে অবস্থিত নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা হাসপাতালে করোনার অ্যান্টিজেন পরীক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

শামীম ওসমান বলেন, এই করোনাকালে আমাদের শিক্ষা হয়েছে কি না, আমরা জানি না। কিন্তু এই নারায়ণগঞ্জের অনেক ঘটনা আমরা সাংবাদিকদের মাধ্যমে জানতে পেরেছি যে, সেসময় কোথাও বাবার লাশ পড়ে আছে কিন্তু সন্তান সেই লাশ ধরছে না। আবার দেওভোগ বাবুরাইলে এক গিটারিস্টের লাশ রাতভর রাস্তায় পড়েছিল। কিন্তু কেউ না ধরায় পরদিন সেই লাশ দাফন করা হয়েছিল।

শুধু তাই নয়, আমি একটি এলাকার নাম বলবো না। যে এলাকায় একজন বাবার লাশ পড়েছিল, যখন লাশ উদ্ধারের জন্য স্বেচ্ছাসেবীরা সেই ঘরে প্রবেশ করতে যাচ্ছিলেন তখন ওই পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তাদের দেখে পাশের রুমে ঢুকে গিয়েছিলেন। যারা লাশটি উদ্ধার বা আনতে গিয়েছিলেন, তাদের দেখে মৃতের পরিবারের কেউ নিচে নেমে আসেনি।

উপরন্তু লাশ উদ্ধারকারীদের উপর থেকে বলেছিলেন, ‘ওই যে লাশ পড়ে আছে, নিয়ে যান, নিয়ে যান। ভাই লাশটি যে তোষকটি দিয়ে মোড়ানো ছিল, সেই তোষকটিও আপনারা নিয়ে যান। এটিকে আগুনে পুড়িয়ে দিয়েন।’

দিস ইস দ্যা রিয়েলিটি। মুসলমানদের ভাষায় এটার নাম হলো ইয়া নাফসি। এই ইয়া নাফসির দুনিয়া আমাদের বুঝিয়ে দিয়েছে, আমরা কতটুকু অপারগ, কতটুকু স্বার্থপর।

নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা হাসপাতালের সুপার ডা. আবুল বাশারের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুবাস সাহা, নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি তানভীর আহমেদ টিটু, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনের (বিএমএ) জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. দেবাশীষ সাহা, জেলা স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. বিধান চন্দ্র পোদ্দার। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নারায়ণগঞ্জ ৩শ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. সামসুদ্দোহা সঞ্চয়