আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মসজিদের জমি অবৈধভাবে বিক্রির অভিযোগ

news-image

রাজশাহীর পবা উপজেলার পারিলা গ্রামে একটি মাদরাসার জমি বিক্রি করেছেন স্থানীয় যুবলীগ নেতা আসলাম সরকার। বিক্রি করা ওই জমির দলিল মূল্য ৫১ লাখ টাকা। তবে প্রকৃত মূল্য ২ কোটি টাকার বেশি হতে পারে বলে স্থানীরা মনে করছেন।
সোমবার (৪ জানুয়ারি) দুদকের রাজশাহী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমীর হোসেনের নেতৃত্বে এক অভিযানে এসব তথ্যের সত্যতা পাওয়া যায়।

দুদক জানায়, স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তির বিরুদ্ধে মাদরাসার জমি অবৈধভাবে বিক্রির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুদক টিম সরেজমিনে ওই মাদরাসা পরিদর্শন করে এবং অভিযোগ সংশ্লিষ্ট নথিপত্র সংগ্রহ করে। টিম অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দুই বিঘার বেশি ওই জমিটি ছিল স্থানীয় দাখিল মাদরাসার নামে। পারিলা ইউনিয়নে যুবলীগের সাবেক এক নেতা ২০০৯ সালে দুই বছর জন্য মাদরাসা কমিটির সভাপতি হন। এরপর আর নতুন কমিটি হয়নি। ২০১৫ সাল থেকে এই মাদরাসার কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে।
এলাকাবাসীর অভিযোগ, এই সুযোগে যুবলীগের সাবেক সভাপতি আসলাম সরকার গোপনে কমিটির পক্ষ হয়ে মাদরাসার ওই জমি একটি প্রতিষ্ঠানের কাছে বিক্রি করে দেন। খবর জানাজানি হলে এলাকাবাসী বিক্ষোভ সমাবেশও করে।

রাজশাহী সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমীর হোসেন জানান, মাদরাসা ও কবরস্থানের জমি অন্যের নামে দলিল করা হয়েছিল। পরে এলাকাবাসী ও স্থায়ী জনপ্রতিনিধির চাপে তা মাদরাসার নামে পুনরায় ফেরত দেওয়া হয়েছে।

এ জাতীয় আরও খবর