আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

যৌতুকের দাবি মেটাতে না পারায় বিয়ে পণ্ড, হাতাহাতি

news-image

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে বরের দাবিকৃত যৌতুক মেটাতে না পারায় বিয়ের পিঁড়িতে না বসে আনুষ্ঠানিকতা পণ্ড করে দেয় পাত্র পক্ষ। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে হাতিহাতি ও উত্তেজনার সৃষ্টি হলে রাতে পুলিশ তিনজনকে আটক করে থানা হাজতে নিয়ে আসে। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ আগস্ট) রাতে উপজেলার কড়ল ডেঙ্গা চন্ডী তীর্থ মেধস মুনির আশ্রমে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশের হাতে আটকৃতরা হলেন, পাত্র যিকু শীল, পাত্রের বাবা বাবুল শীল ও বিয়ের ঘটক মদন শীল।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, চন্দনাইশ উপজেলার মধ্যম হাশিমপুর ইউনিয়নের কন্যা দায়গ্রস্ত পিতার দশম শ্রেণি পড়ুয়া মেয়ের সাথে বোয়ালখালী উপজেলার কড়লডেঙ্গা ইউনিয়নের উত্তরভূর্ষি গ্রামের বাবুল শীলের ছেলে যিকু শীলের বিয়ের ঠিক হয়। বিয়ের পণ হিসাবে ধরা হয় ৬০ হাজার টাকা ও ১ ভরী স্বণালংকার। বরের দাবিকৃত নগদ টাকার মধ্যে ৫ হাজার টাকা কনে পক্ষ দিতে না পারায় ঘটে বিপত্তি।  কয়েক দফায় লগ্ন পেরিয়ে গেলেও বিয়ের পিঁড়িতে বসেননি পাত্র যিকু শীল। যিকু ও তার পিতা স্থানীয় সেলুন কর্মচারী বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

কনের মা বলেন, পাত্রপক্ষের দাবি ছিল নগদ ৬০ হাজার টাকা ও ১ ভরি স্বর্ণালংকার এবং মন্দিরে বিয়ের  আয়োজন করলে হবে। এ ছাড়া ছেলের ঘর ফার্নিচার দিয়ে সাজিয়েছে দিতে হবে।

ছেলের দাবি অনুযায়ী, ধার্য তারিখ বৃহস্পতিবার মেধস আশ্রমে বিয়ের আয়োজন করা হয়। সবকিছু দিলেও নগদ ৬০ হাজার টাকার মধ্যে ৫ হাজার টাকা কম থাকায় পাত্র বিয়ের পিঁড়িতে বসতে অস্বীকার করেন। এ নিয়ে দেন দরবারে তিনটি লগ্ন পেরিয়ে গেলে বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়।

থানা পুলিশ পাত্রসহ তিনজনকে আটক করার পর তারা এ বিয়েতে রাজি হলেও কনে এ বিয়েতে অস্বীকৃতি জানায়।

কনের মা আরো বলেন, পাত্রপক্ষ চাপে পড়ে রাজি হলেও পরবর্তীতে সমস্যার সৃষ্টি হবে। মাত্র ৫ হাজার টাকার জন্য যে বিয়ে করেনি, তার সাথে কার ভরসায় মেয়ের এ বিয়ে দিবেন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল করিম বলেন, এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ জাতীয় আরও খবর