আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

রূপগঞ্জে মাদ্রাসা ‘বেদখল’, খোলা আকাশের নিচে পাঠদান

news-image

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ‘তাক্বওয়া দারুস সুন্নাহ’ নামে একটি মাদ্রাসা দখলের অভিযোগ উঠেছে। মাদ্রাসাটি দখলে নেওয়ায় খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে। এতে ছেলেমেয়েদের লেখাপড়া নিয়ে উদ্বিগ্ন অভিভাবকমহল। ঘটনাটি পূর্বাচল উপশহরের ২১ নম্বর সেক্টরের রঘুরামপুর এলাকায় ঘটেছে।

মাদ্রাসার সভাপতি ও ওয়াকফ জমিদাতা মজিবুর রহমান মোল্লাহ জানান, পূর্বাচল উপশহরের ৪ নম্বর সেক্টরে ৫৪ কাঠা জমির উপরে মসজিদ ও মাদ্রাসা ছিল। যেটা অধিগ্রহণ করা হয়নি। বাণিজ্যমেলার জায়গা বৃদ্ধির কারণে তাকে ৪ নম্বর সেক্টরের পরিবর্তে ২১ নম্বর সেক্টরে রাজউকের ৪৫ কাঠা জমিতে স্থানান্তরের নির্দেশ দেয়। এরপর গত ২০১৯ সালে ওই জমিতে মসজিদ ও মাদ্রাসা গড়ে তোলা হয়।

কয়েক দিন আগে রাজউকের সীমানাঘেঁষা ফুলবাড়িয়ারটেক এলাকার আমির হোসেন, আরমান, মজিবুর খাঁন, কাজিমউদ্দিন, আরিফসহ একটি সংঘবদ্ধ চক্র মাদ্রাসা দখলে নিয়ে চারদিকে বাঁশের বেড়া দেন। এরপর থেকে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে।

মাদ্রাসার শিক্ষার্থী আসাদুল আল গালিফ, কারিন আহাম্মেদ, মোহাম্মদ আনিছ, বাঁধন, হাফসা আক্তার, উম্মে কুলসুম ও আয়শা আক্তার বলেন, ‘স্যার আমাদের মাদ্রাসা দখল করে নিয়েছে। আমরা আসমানের নিচে লেখাপড়া করছি।’

মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক হাসানুল হক বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে মাদ্রাসায় লেখাপড়া চালিয়ে আসছি। গত কয়েকদিন আগে স্থানীয় কয়েকজন মাদ্রাসা দখলে নিয়েছে। এরপর থেকে ছাত্রছাত্রীদের খোলা আকাশের নিচে ক্লাস চালাচ্ছি।

অভিযুক্ত আমির হোসেন বলেন, ৪ নম্বর সেক্টরে তার মসজিদ মাদ্রাসা ছিল। পরে রাজউক তাকে ২১ নম্বরে মসজিদ করার জন্য জায়গা বরাদ্দ দেয়। তিনি অতিরিক্ত জায়গা দখলে নিয়ে মাদ্রাসা করেছে। তাই এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে দখল করেছি।

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) প্রকৌশলী বদরুল আলম বলেন, রাজউকের ৪ নম্বর সেক্টরের তার জমির গড়ে তোলা মসজিদ-মাদ্রাসার পাশেই বাণিজ্যমেলা। বাণিজ্যমেলা বৃদ্ধির কারণে তার জমি রাজউক বুঝে নিয়ে তাকে ২১ নম্বর সেক্টরে বুঝিয়ে দিয়ে মৌখিক নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাকি কাজ প্রক্রিয়াধীন।

রূপগঞ্জ থানার ওসি এএফএম সায়েদ বলেন, এমন কোন অভিযোগ পাইনি। যদি পাই, অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ নুসরাত জাহান বলেন, কোন অভিযোগ পাইনি। খোঁজ নিয়ে দেখব।