আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

শৌচাগারে ছাত্রী আটকা: প্রধান শিক্ষককে শোকজ

news-image

চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার হোসেনপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শৌচাগারে এসএসসি পরীক্ষার্থী এক বাক্‌প্রতিবন্ধী ছাত্রী ১১ ঘণ্টা আটকা পড়ার ঘটনায় প্রধান শিক্ষক মো. আমির হোসেনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন স্থানীয় প্রশাসন।

এই ঘটনায় দায়ী আয়া শাহানারা বেগমকে শনিবার সাময়িকভাবে বরখাস্তের ঘোষণা দিয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে মুখে ঘোষণা দিলেও অভিযুক্ত ওই আয়া স্কুলের সকল কাজকর্ম করছেন আগের মতোই।

এই ঘটনা তদন্তে শনিবার বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা তাহমিনা বেগমকে প্রধান করে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বাকি দুই সদস্য হলেন- সহকারী শিক্ষক উম্মে কুলসুম ও আবু হানিফ ভূইয়া। তিন কার্যদিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দেওয়ার কথা রয়েছে।

শনিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরীন আক্তার, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. গিয়াস উদ্দিন পাটোয়ারী ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আহসান উল্যাহ চৌধুরী।

প্রাথমিক তদন্তে দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তারা।

বরখাস্তকৃত আয়া স্কুলে কীভাবে কাজ করেন এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মো. আমির হোসেন বলেন, আমাদের স্কুলে একজন দপ্তরি ও একজন আয়া রয়েছে। এখন তারা না থাকলে বিদ্যালয়ের যেই কাজকর্ম রয়েছে তা কীভাবে করবে? আয়া তার কাজ করলেও তার হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর রাখা বন্ধ রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিরীন আক্তার বলেন, আমি ঘটনাস্থলে এসে ছাত্রী, তার বাবা, স্থানীয় মানুষ, অভিযুক্ত কর্মচারী ও শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলেছি। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করা হয়নি। আমার প্রতিবেদনে তা তুলে ধরা হবে।

শাহরাস্তি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আহসান উল্যাহ চৌধুরী জানান, স্কুলের টয়লেটে ছাত্রী থাকাবস্থায় তালাবন্ধ করা, স্থানীয় লোকজন তালা ভেঙে ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের সময় ঘটনাস্থলে অনুপস্থিত থাকা, ঘটনার বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত না করা ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীকে ভর্তি করার পর তার বিশেষ যত্নের ব্যবস্থা না করায় প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। তিন কার্য দিবসের মধ্যে নোটিশের জবাব জমা দিতে হবে।

জেলা শিক্ষা অফিসার মো. গিয়াস উদ্দিন পাটোয়ারী বলেন, প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। আর তাদের সেখানেই ভর্তি হওয়া উচিত। সে কিভাবে বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে তা আমি আগে থেকে জানতাম না। তবে সে যেহেতু এসএসসি পরীক্ষার্থী, আগামীতে তার লেখাপড়ায় যেন কোনো সমস্যা না হয় সে ব্যাপারে আমরা বিশেষভাবে নজর রাখতে নির্দেশ দিয়েছি।

এসএসসি পরীক্ষার্থী বাকপ্রতিবন্ধী শারমিন আক্তার বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার সময় বিদ্যালয় ছুটির পর বাথরুমে গেলে তালা বন্ধ করে চলে যান বিদ্যালয়ের আয়া শাহানারা আক্তার। রাত ১০টার পর বাথরুমের তালা ভেঙে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে।

এ জাতীয় আরও খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে ৫৮ কেজি ওজনের কেক কাটলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন ১৮ চেয়ারম্যান

‘প্রশাসনে বাংলাদেশি যেমন আছে, অসংখ্য পাকিস্তানিও আছে’

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘের আহ্বান

শিশু শ্রমে নির্মাণ হচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর

পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময়

বিএনপি-জামায়াত বা তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পীরগঞ্জে জেলে পল্লিতে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

উপকূলে ৩নং সতর্ক সংকেত, দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন শিশুকে যেন রাসেলের ভাগ্যবরণ করতে না হয়: প্রধানমন্ত্রী

ফতুল্লায় মিশুক চালককে হত্যার দুই ঘাতক গ্রেপ্তার