আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকবে ১৮৫ কিমি, ‘ইয়াস’ আতঙ্কে পশ্চিমবঙ্গ

news-image

ভয়ঙ্কর শক্তিশালী রুপ নিয়ে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘ইয়াস’। এই ঝড়ের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে। জানা গেছে, উত্তর আন্দামান ও বঙ্গোপসাগরে ইতিমধ্যেই গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে সেটি। আজ রাতের দিকে সেটি অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হবে এবং আগামীকাল সকালের দিকে পরিণত হবে ঘূর্ণিঝড়ে।

ভারতের আবহাওয়া বিভাগ এক পূর্বাভাসে জানিয়েছে, শক্তি বাড়িয়ে আগামিকাল রাতে ‘শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়’ এবং ২৫ মে সকালে ‘অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে’ পরিণত হবে এটি। তারপর বাংলা এবং ওড়িশা উপকূলের দিকে এগিয়ে আসতে থাকবে ‘ইয়াস’।

আরও বলা হয়েছে, এই মুহূর্তে দিঘা থেকে ৬৫০ কিমি দক্ষিণ-দক্ষিণ পূর্বে অবস্থান‌ করছে ‘ইয়াস’। ওড়িশার পারাদীপ থেকে ৫৯০ কিমি পূর্ব-দক্ষিণপূর্বে অবস্থান করছে এটি। আগামী ২৬ মে বিকেলে উত্তর ওড়িশার পারাদীপ থেকে পশ্চিমবঙ্গের সাগরের মধ্যে কোনও একটি জায়গা দিয়ে স্থলভাগে আছড়ে পড়তে পারে এটি। স্থলভাগে আছড়ে পড়ার সময় এর সর্বোচ্চ গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ১৮৫ কিলোমিটার।
পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, আগামী ২৫ তারিখ মঙ্গলবার থেকে মেদিনীপুর, উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা, কলকাতা, হাওড়া, হুগলির উপকূলবর্তী এলাকায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ২৬ মে সকাল থেকেই কলকাতা সহ দক্ষিণ ২৪ পরগনা, উত্তর ২৪ পরগনা, হাওড়া, হুগলি সহ একাধিক জেলায় অতিভারী বৃষ্টিপাত হবে। ২৭ মে মূলত উত্তরবঙ্গে এবং পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

উল্লেখ্য, ঝড়ের পূর্বাভাসের ওইদিন একইসঙ্গে বুদ্ধ পূর্ণিমাও। সমুদ্রে ৬ মিটার অর্থাৎ ২০ ফুট পর্যন্ত জলোচ্ছ্বাস হতে পারে বলে জানিয়েছে ভারতের আবহাওয়া বিভাগ। তবে পশ্চিমবঙ্গে ইতিমধ্যেই সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আম্ফানের স্মৃতি উস্কে বছর ঘুরতে না ঘুরতে এবার ‘ইয়াস’-এর ভয়াবহ আঘাতের সম্ভাবনা দেখছে ভারত।