আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সাবেক এমপির বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধাকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকির অভিযোগ

news-image

সরকারি জমি দখল ও অনিয়মের বিরুদ্ধে মুখ খোলায় এক মুক্তিযোদ্ধা ও ইউপি চেয়ারম্যানকে লাঞ্ছিত ও হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে পাবনা-২ আসনের সাবেক এমপি খন্দকার আজিজুল হক আরজুর বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ওই মুক্তিযোদ্ধা শুক্রবার সন্ধ্যায় সাবেক এমপি আরজু ও তার তিন সহযোগীর নাম উল্লেখ করে আমিনপুর থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলে জেলার বেড়া উপজেলার পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়নের একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী মুক্তিযোদ্ধা এ এম রফিকুল্লাহ বেড়া উপজেলার পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে চরম ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে।

মুক্তিযোদ্ধা এ এম রফিকুল্লাহ জানান, শুক্রবার দুপুরে বক্তারপুর গ্রামের আব্দুল মতীনের বাড়িতে একটি কুলখানির অনুষ্ঠানে গিয়েছিলাম। বেলা আড়াইটার পরপরই সাবেক এমপি খন্দকার আজিজুল হক আরজু ওই অনুষ্ঠানে ১০/১২ অনুসারীকে নিয়ে আসেন। অনুষ্ঠানে আমার উপস্থিতির খবর পেয়েই বিষোদ্‌গার করে স্লোগান দিতে শুরু করেন। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আমি ওই বাড়ির একটি কক্ষে আশ্রয় নিই। কিছুক্ষণ পর তিনি ওই ঘরে ঢুকে আমাকে অবৈধ এমপি বাজার বিষয়ে বক্তব্য দেওয়ার প্রসঙ্গ তুলে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন। এ সময় উপস্থিত লোকজন আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিলে তিনি মুক্তিযোদ্ধা নিয়েও অশ্রাব্য ও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন এবং আমাকে প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যান।

তিনি বলেন, এ সময় উপস্থিত লোকজন সাবেক এমপির এমন আচরণে হতবিহ্বল হয়ে পড়েন। তারা এ সময় আমাকে সান্ত্বনা দিয়ে বাড়ি পৌঁছে দেন।

চেয়ারম্যান রফিকুল্লাহ আরো জানান, সাবেক এমপি আরজু নগরবাড়ী এলাকায় ৮ একর সরকারি জমি দখল করে নিজের নামে অবৈধ মার্কেট গড়েছেন। তার এই অপকর্মের বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে বক্তব্য দেওয়ায় আমার ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছেন। তার অনুসারী অবৈধ অস্ত্রধারী চরমপন্থী ও সন্ত্রাসী বাহিনী রয়েছে। আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি, প্রশাসনের নিকট জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় ডায়েরি করেছি। পাশাপাশি বিষয়টি স্থানীয় এমপি আহমেদ ফিরোজ কবিরসহ দলীয় নেতৃবৃন্দকে অবহিত করেছি।

ঘটনার একাধিক প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একজন সাবেক আইনপ্রণেতার মারমুখী আচরণে মনে হয়েছে তিনি পরিকল্পিতভাবেই এ ঘটনা ঘটিয়েছেন। দোয়া মাহফিলের অনুষ্ঠানে মুক্তিযোদ্ধা চেয়ারম্যান এ এম রফিকুল্লাহকে অপদস্থ করার পরও তিনি অসীম ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছেন।

পাবনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আহমেদ ফিরোজ কবির বলেন, ঘটনাটি আমি শুনেছি, তিনি একজন মুক্তিযোদ্ধার সঙ্গে এমন অশোভন আচরণ করতে পারেন না, এটি দুঃখজনক ও লজ্জার। আমার মনে হয়েছে তিনি ¯^াভাবিক অবস্থায় নেই। বিষয়টি নিয়ে দলীয় ফোরামে আলোচনা করা হবে।

পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য খ ম হাসান কবির আরিফ বলেন, সাবেক এমপি আরজু এক সময়ে জাসদ গণবাহিনীর সন্ত্রাসী ছিলেন। পরে হাওয়া ভবনের বিএনপির দুর্নীতিবাজদের সঙ্গে সখ্য গড়ে ব্যবসা-বাণিজ্য করেছেন। কীভাবে তিনি আওয়ামী লীগের নেতা ও এমপি হয়েছেন, তা তদন্ত হওয়া দরকার। একজন মুক্তিযোদ্ধা সন্তান হিসেবে মুক্তিযোদ্ধাদের অপদস্থ করার তীব্র নিন্দাই শুধু নয়, বিচার দাবি করি।

পাবনার মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি বলেন, সাবেক এমপি আরজু মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী দল আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল পদ থেকে মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে বিষোদ্‌গার করার ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। আমি তার ধৃষ্টতাপূর্ণ আচরণের শাস্তি দাবি করছি।

পাবনা-২ আসনের সাবেক এমপি খন্দকার আজিজুল হক আরজু বলেন, চেয়ারম্যান রফিকুল্লাহকে লাঞ্ছিত করার কোনো ঘটনাই ঘটেনি। তাকে কথিত এমপি বাজার নিয়ে কথাকাটাকাটি হয়েছে মাত্র। মুক্তিযোদ্ধা নিয়েও কটূক্তি বা তাকে হত্যার হুমকির বিষয়টি অসত্য।

এ ব্যাপারে আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রওশন আলী বলেন, পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ এম রফিকুল্লাহর অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে ৫৮ কেজি ওজনের কেক কাটলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন ১৮ চেয়ারম্যান

‘প্রশাসনে বাংলাদেশি যেমন আছে, অসংখ্য পাকিস্তানিও আছে’

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘের আহ্বান

শিশু শ্রমে নির্মাণ হচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর

পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময়

বিএনপি-জামায়াত বা তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পীরগঞ্জে জেলে পল্লিতে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

উপকূলে ৩নং সতর্ক সংকেত, দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন শিশুকে যেন রাসেলের ভাগ্যবরণ করতে না হয়: প্রধানমন্ত্রী

ফতুল্লায় মিশুক চালককে হত্যার দুই ঘাতক গ্রেপ্তার