আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সিটি মিলে বিস্ফোরণে দগ্ধ শ্রমিকের মৃত্যু

news-image

রূপগঞ্জের তারাব পৌরসভার গন্ধর্বপু এলাকায় সিটি গ্রুপ মিলের হাসকিং প্লান্টের বয়লার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৪ শ্রমিকের একজন মারা গেছেন। নিহতের নাম মো. হযরত আলী (৪৫)।

আহত অন্যান্যরা হলেন উপজেলার রূপসী গর্ন্ধবপুর এলাকার মৃত তাহেরের ছেলে সিরাজুল ইসলাম (৫০), উত্তরপাড়া এলাকার বিলায়েত হোসেন (৫৫) ও কারখানার নিরাপত্তারক্ষী রানা (৪৫)।

শনিবার (২১ নভেম্বর) ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

নিহতের স্ত্রী বিলকিছ জানান, ছেলের বাবার আশা আছিল আমাদের ছেলের জন্য একটুজমি কিনে পাকা ঘর বানাবেন। ৪০০ টাকা হাজিরায় ৩ বছর ধরে সিটি মিলে কাম করতাছে। বাজারে সব কিছুর দাম বেশি আমি অসুস্থ, ঘর ভাড়া দিয়ে কিছুই থাকে না। আমাগো তো নতুন বাড়ি হইল না। আমাগো কেডা বাজার কইরা দিব? আমার ঔষধ কে কিন্না দিব? ঘর ভাড়ার টাকার জন্য কার কাছে যামু?

উল্লেখ্য, গত ২০ নভেম্বর দুপুরে সিটি ইকুনোমিক জোন সিটি গ্রুপ মিলের হাসকিং প্লান্টের বয়লারে বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটে। এসময় ২ জন দগ্ধ হয়ে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসা নেন। দগ্ধদের মধ্যে বেলায়েত চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হযরত আলী গত রাত ১১টার দিকে মারা যায়।

সুত্রের খবর নিহত হযরত আলী পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী। তার এক ছেলে দুই কন্যা ও স্ত্রী রয়েছে। তিনি উপজেলার তারাব পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডএলাকার খোরশেদা বেগমের বাড়ির ভাড়াটিয়া। ছেলে সুজন (২০) ও দুই কন্যা লিজা, পিংকি। নিহতের স্ত্রী বিলকিছ বেগম। বিলকিছ বেগম নানা রোগে ভুগছেন। ছেলে বেকার। কিভাবে সংসার চালাবেন তা ভেবেই এখন তিনি কান্নায় বুক ভাসাচ্ছেন।

নিহত হযরত আলীর প্রতিবেশীরা জানান, ৩ বছর ধরে সিটি মেইলে কাম করেন হযরত অলী। সে আমাদের এলাকার ভাড়াটিয়া। সে বয়লারে কাজ করত বলে জানতাম। তার গায়ের চামরা ও হাত পা’য়ের চামরা নখ আলাদা হয়ে গেছে। সে কোনো কিছু বলতে পারেনি। মিলের ভেতরে বিস্ফোরণ হলে টিনের সঙ্গে উড়ে ১০০ গজ দূরে রাস্তার মধ্যে গিয়ে আছড়ে পড়ে ওই শ্রমিক।

এ ঘটনায় জানতে চেয়ে মিলের ভিতরে যাওয়ার চেষ্টা করা হলে নিরাপত্তা প্রহরীরা গেট আটকে রাখেন। হযরত আলী কয়টার সময় কাজে ছিল তার হাজিরা দেখার বিষয়ে জানতে চাইলে কেউ কথা বলতে রাজি হননি।

এ জাতীয় আরও খবর

নির্বাচনী বিরোধে প্রাণ গেল ১ জনের

এসআই ফখরুল কাণ্ডে অতিষ্ঠ এক ‘মা’!

৩৫ বছর বয়সী একজন রাজনৈতিক নেত্রী স্কুল পোশাকে আন্দোলন করছেন: তথ্যমন্ত্রী

৬ ছাত্র হত্যার ফাঁসির আসামিকে নৌকার মনোনয়ন, পরে প্রত্যাহার

ইরানের বন্দরে পাকিস্তানের ৩ যুদ্ধজাহাজ

নভেম্বরে ১ লাখের বেশি কর্মী বিদেশ গেছেন

দুই ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েও করোনায় ঢাবি অধ্যাপকের মৃত্যু

ছাইয়ে তলিয়ে গেছে গ্রাম, চাপা পড়েছে গাড়ি

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ: কয়রায় বেড়িবাঁধ ভেঙে দুই গ্রাম প্লাবিত

অর্থপাচারকারী প্রিন্স মুসা, মিন্টু-তাবিথদের তালিকা হাইকোর্টে, যা বললেন আদালত

সন্তান বিক্রি করতে যাওয়া সেই বাবা পেলেন অটোরিকশা

মৃত ভেবে সীমান্তে শাহাজানকে ফেলে দিয়েছিল মামারা