আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সিদ্ধিরগঞ্জে ঈদকে সামনে রেখে জমজমাট মাদকের হাটবাজার

নূরুল আজিজ চৌধুরী ও রাসেল খান নারায়ণগঞ্জঃ
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মিজমিজী টি.সি রোড তালতলা ক্লাব এলাকার পান ব্যাবসায়ী আমীর হোসেনের ছেলে আব্দুল গাফফার, মৃত জমীর আলীর ছেলে ডাকাত শামসু ও কল মিস্ত্রির আউয়ালের ছেলে করিম বাদশার মাদক ব্যবসা জমজমাট হয়ে উঠেছে।মাদক বেচাকেনা ও সেবনের ধুম পড়েছে। নারায়ণগঞ্জ জেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মিজমিজী তালতলা ক্লাব পাপুয়া নিউগিনি থাকা মালেকের বাড়ির আশেপাশের গল্লি ও ইস্কুল রোড এলাকা জুড়ে।

এই মাদক ব্যবসায়ীদের মোবাইল ফোনে যে কোনো ধরনের মাদকের অর্ডার করলেই ডেলিভারি ম্যানের মাধ্যমে মোটরসাইকেল বা বাইসাইকেল বা অটো রিক্সার যোগে দ্রুত পৌঁছে দেয়া হচ্ছে তাদের ঠিকানায়।

জানা গেছে, আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বিভিন্ন ধরনের নেশা সামগ্রীর বেচাকেনায় লেগেছে ঈদের ধুম। শুধু তাই নয় মাদক সেবনকারীকে ঝুঁকি নিয়ে আনতে হবে না মদ, গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য।

এই মাদক ব্যবসায়ীরা এবার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে চালিয়ে যাচ্ছে মাদক বেচাকেনা। ফোন করে মাদকের অর্ডার আর বিকাশের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ এমনই কায়দায় চলছে তাদের মাদকের রমরমা ব্যবসা।

তবে এ ব্যাপারে এই মাদক ব্যবসায়ীরা নিজেদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে সতর্কতা অবলম্বন করছেন। এক্ষেত্রে মাদকসেবীদের পূরণ করতে হবে কিছু শর্তও।
নাম না প্রকাশের শর্তে কল মিস্ত্রির আউয়ালের বাড়ির পাশের এক মাদক ব্যবসায়ী জানান, যে কেউ ফোন করে চাইলেই মিলবে না মাদকদ্রব্য।

মাদক পেতে হলে ওই ব্যবসায়ীর পরিচিত ও নিয়মিত একজন খরিদ্দারের সুপারিশ লাগবে তার পরই মিলবে চাহিদা মতো গাঁজা, ফেনসিডিল, ইয়াবাসহ যে কোনো মাদকদ্রব্য। এরপর ব্যবসায়ীদের নিয়োগ দেয়া (মোটরসাইকেল চালক) ডেলিভারি ম্যান নিরাপদ ঠিকানায় পৌঁছে দিবে মুহূর্তের মধ্যে। তবে এ ধরনের সুযোগের জন্য অর্ডারকারীকে জায়গা ভেদে গুনতে হয় একটু বাড়তি টাকা।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশসহ র‌্যাব-১১, ও নারায়ণগঞ্জ ডিবি পুলিশের তৎপরতায় চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, আব্দুল খালেকের ইয়াবা সম্রাট মোস্তফার ছোট ভাই মিলন, জমির আলীর ছেলে সামছু, কল মিস্ত্রির আউয়ালের ছেলে করিম বাদশা,
মৃত শাহাবুদ্দিনের ছেলে সেলিমের ছোট ভাই মামুন ও মামুনের বৌ হেনা বেগম, মৃত মোনার পোলা ইকবাল ও ইকবালের বৌ তার ফুপু বাসিরুন নেছা ওরফে দেন্ধী
মামুনের ভাই মানিক, দুলাল, রাসেল , রবিন, মুন্না, শামীম, ইস্কুল রোডের এই মাদক ব্যবসায়ীরা মাঝে মধ্যে পাকড়াও হলেও আইনের ফাঁক দিয়ে জেল থেকে বেরিয়ে এসে পূনরায় শুরু করে তাদের জমজমাট মাদক ব্যবসা।

পরিচিত মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের সন্ধ্যার পর থেকে নূর সালামের বাড়ির রাস্তা ও সেলিমের বাড়ির গল্লি, কল মিস্ত্রি আউয়ালের বাড়ির ও ইন্দু বাড়ির রাস্তায়, শারজাহানের বাড়ির স্কুল রাস্তায়, ও মালেক বয়াতি বাড়ির রাস্তার, সুলতানের মোর এর আশেপাশের গল্লি ও ইস্কুল রোডের আশেপাশের গল্লিতে আনাগোনা বৃদ্ধি পায়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ ঈদকে সামনে রেখে এলাকায় আবারো মাদক জমজমাট ব্যবসা ও সেবনের মাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই দ্রুত সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ, র‍্যাব-১১ ও নারায়ণগঞ্জ জেলা ডিবি পুলিশের তৎপরতা প্রয়োজন।

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, মাদক ব্যবসায়ী, সেবনকারী ও চাঁদাবাজীর সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চলমান রয়েছে। এদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে, কোনো প্রকারে তাদের ছাড় দেয়া হবে না।

এ জাতীয় আরও খবর

দৌলতদিয়ায় ৭ ফেরিঘাটের ৪টিই বিকল, যানবাহনের দীর্ঘ সারি

পানির নিচে পন্টুন, ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

ছাত্রদল করা সন্তানের জনক হলেন থানা ছাত্রলীগের সহসভাপতি

যমুনা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

চাঁদপুরের ডিসিকে বদলি, তিন জেলায় নতুন ডিসি

গাফফার চৌধুরী আর নেই

প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ভূমি দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ

কুমিল্লার মানবজমিন প্রতিনিধিসহ সারাদেশের সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে সোচ্চার রূপগঞ্জ প্রেসক্লাব ॥ প্রতিবাদ সভা, মানববন্ধন-বিক্ষোভ মিছিল

চাকরির নামে টাকা আত্মসাৎ গ্রেপ্তার ২

মহাসড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি করতো তারা, গ্রেফতার ৬

বনের ভেতর সিসা তৈরির কারখানা, হুমকির মুখে পরিবেশ

বাঘাবাড়ী নৌবন্দর খুঁড়িয়ে চলছে