আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সিরাজগঞ্জে করতোয়া নদীতে অতিথি পাখির কিচিরমিচির শব্দে মুখরিত হয়ে উঠেছে

news-image

সুজন সরকার, সিরাজগঞ্জ :সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ গ্রাম ঘেষে বয়ে যাওয়া করতোয়া নদীতে চলে এসেছে পিয়াং হাঁস, পাতি সরালি, লেঙজা হাঁস, বালি হাঁস, পাতিকুটসহ দেশী জাতের শামুকখোল, পানকৌড়ী, ছন্নি হাঁস বিলসহ অনেক চেনা-অচেনা অতিথি পাখিরা। প্রতি বছর শীতের শুরুতে বিভিন্ন প্রজাতির অতিথি পাখির আগমন ঘটে এই করতোয়া নদীতে। এ যেন করতোয়া নদীর মায়াজালে অতিথি পাখিরা। আবার শীতের শেষের দিকে তারা তাদের নিড়ে চলে যায়।
সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, করতোয়া নদীর পাড়ে শত শত মানুষের ভীড়। সকাল-সন্ধ্যা পাখির কিচিরমিচির আর জলে ডানা ঝাপটানোর শব্দ উপভোগ করেন পাখি প্রেমিরা। দলবেঁধে যখন পাখিগুলো আকাশে ওড়ে, তার সঙ্গে যেন উড়ে চলে মনও। পুরো এলাকাটিই সরব করে রাখে এই পাখিগুলো। পাখিদের এই মিছিলে রয়েছে দেশীয় বক, বালিহাঁস, পানি কাউর, পানকৌড়িসহ নাম না জানা আরো অনেক অতিথি পাখি।
তাড়াশ উপজেলার নওগাঁ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ খন্দকার জানান, শীত এলেই অতিথি পাখিগুলো যে কোথা থেকে আসে তা জানি না। তবে বেশ কয়েক বছর ধরে প্রচুর পাখি আসে করতোয়া নদীতে। অতিথি পাখি যেন শিকার না হয় সেদিকে প্রশাসনের পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দারা খেয়াল রাখবেন বলে আমি মনে করি।
নাটোরের গুরুদাসপুর থেকে আসা পাখি প্রেমি মিনা কবির, শাহজাদপুর উপজেলা স্বপ্না পারভীন ও নীরব আহম্মেদ বলেন, নদীতে অতিথি পাখির কিচির মিচির শব্দে মুখরিত হয়ে থাকে। খুব বড় না হলেও নদীটি পাখির কারণে বেশ পরিচিতি লাভ করেছে। পাখির বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গি, উড়েচলা, নীরবে বসে থাকা মানুষকে আকৃষ্ট করছে। তাই এক নজর পাখি দেখার জন্য এখানে এসেছি।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, আমাদের অসচেতনতার অভাবে সামান্য স্বার্থের বা শখের কারণে আমরা শীতের অতিথি পাখিদের শিকার করে মেরে ফেলছি। পাখিরা নিজ আবাস ভূমি ছেড়ে চলে আসে। সেই পাখিগুলোর বেশিরভাগই আবার তাদের নিজ ভূমিতে শীত শেষে ফিরে যেতে পারে না এক শ্রেণির অর্থ লোভী পাখি শিকারিদের অত্যাচারে। এটা আমাদের জন্য খুবই মর্মদায়ক। মানুষের সৃষ্ট কারণে প্রাকৃতিক পরিবেশ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে।
এ ব্যাপারে তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইফফাত জাহান বলেন, পাখি প্রকৃতির অলংকার। এ অলংকার ধ্বংস করা মানে পরিবেশ ধ্বংস করা। আমাদের দেশ ক্রমে ক্রমে অতিথি পাখির জন্য ঝুঁঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠছে। শুধু আইন দিয়েই পাখি শিকার বন্ধ করা যাবে না। সর্বস্তরের মানুষকে এ ব্যাপারে সচেতন হতে হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

যত্রতত্র পশুরহাটের অনুমতি দেয়া যাবে না : ওবায়দুল কাদের

ভেন্টিলেটর কাজে লাগে না, মানুষ মরে যায়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

করোনার ভয়াবহতা এখনও বাকি : ডব্লিওএইচও

আগামীকাল সকাল ১১টা থেকে সদরঘাটে প্রত্যক্ষদর্শীদের সাক্ষ্য নিবে তদন্ত কমিটি

সুন্দরগঞ্জে শিশু ধর্ষণচেষ্টা, যুবক গ্রেপ্তার

ভাগ্নিকে আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলেন, এরপর বাবা-মামা মিলে হত্যা

ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির ঘটনায় মহিলা পরিষদের উদ্বেগ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিকদের গ্রেপ্তারে সম্পাদক পরিষদের তীব্র নিন্দা

ওয়ারীতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে স্বামী তিন দিনের রিমান্ডে

ডাক্তারদের থাকা-খাওয়ার কোনো দুর্নীতি হয়নি : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

জাহিদকে সরিয়ে মতিয়াকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী করার দাবি সংসদে

২৪ ঘন্টায় করোনায় রেকর্ড সংখ্যক ৬৪ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত সর্বোচ্চ ৩,৬৮২ জন