আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সুবিধাবঞ্চিত ফুলহার গুচ্ছগ্রামবাসী, জর্জরিত নানা সমস্যায়

news-image

গাইবান্ধা: নানা সমস্যায় জর্জরিত গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের ফুলহার গুচ্ছগ্রাম। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকায় বসবাসকারীরা নাগরিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এছাড়া যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি শুরু থেকেই সংস্কার না করায় চলাচলের সম্পূর্ণ অযোগ্য হয়ে পড়েছে। পানি সংকটও এই গুচ্ছগ্রামবাসীর অনেক বড় সমস্যা। এত সমস্যার পরও সেখানে নতুন করে নির্মিত আরও ৬০টি ঘর বরাদ্দ দেওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে।

তবে উপজেলা প্রশাসন জানিয়েছে, গুচ্ছগ্রামের যদি কোনো সমস্যা থাকে তা সমাধানে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয়রা জানান, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কাটাবাড়ী ইউনিয়নে ভূমিহীন, গরীব, দুঃস্থ, অসহায় মানুষের জন্য সরকার ফুলহার গুচ্ছগ্রামে ১৩০টি ঘর নির্মাণ করা হয়। এর মধ্যে ১০০টি ঘর বরাদ্দ পেয়ে ৩ বছর ধরে লোকজন বসবাস শুরু করে। বাকি ঘরগুলিতে লোক না থাকায় বর্ষা বৃষ্টিতে ঘরের মেঝের মাটি সরে গিয়ে বসবাসের অনুপোযোগী হয়ে পড়েছে।

অন্য ঘরগুলোতে বসবাসকারীদের সুবিধাও বাড়েনি। প্রায় ৬০০ জন মানুষ এখানে বসবাস করলেও পর্যাপ্ত নলকূপ নেই। যেসব নলকূপ রয়েছে সেগুলোর বেশিরভাগ অকেজো, পানি ওঠে না। এছাড়াও পড়ালেখা করার জন্য ২ কিলোমিটারের মধ্যে কোনো পাঠশালা না থাকায় শিশুরাও শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

অন্যদিকে, ফুলহার গুচ্ছগ্রামের মানুষ মারা গেলেও কবর দেওয়ার কোনো নির্ধারিত স্থান নেই। আর মসজিদ রয়েছে গ্রাম থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার দূরে। বাধ্য হয়ে মুসল্লিরা পার্শ্ববর্তী গ্রামে নামাজ পড়তে যান। বসবাসের শুরু থেকেই স্থানীয়দের দাবি গুচ্ছগ্রামের পাশেই নদী তীরবর্তী যে খাস জমি রয়েছে সেখানে তাদের জন্য একটি মসজিদ ও কবর স্থান করে দেওয়া হোক।

বসবাসকারীরা বলছেন, গুচ্ছগ্রামে অনেক ঘর পরিত্যক্ত থাকলেও সেগুলোর সংস্কার না করে নতুন করে আরও ৬০টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। সেগুলো বরাদ্দ না দেওয়ায় এবং লোকজন না থাকায় সেগুলোও ধীরে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

কাটাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শফিক মাহমুদ গোলাপ বলেন, ‘ফুলহার গুচ্ছগ্রামে বিভিন্ন সমস্যা থাকলেও তা সমাধান না করে নতুন করে আরও ৬০টি ঘর নির্মাণ করে সরকারি অর্থের অপচয় করা হচ্ছে। অথচ ৩ বছর ধরে সেখানে বসবাসকারীরা নানা ধরনের সমস্যার মধ্যে জীবনযাপন করছে। তাই তাদের সমস্যাগুলো আগে সমাধান করা দরকার। এ ব্যাপারে সরকার ও প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।’

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সাঈদ জানান, ফুলহার গুচ্ছগ্রামের রাস্তা নির্মাণের ব্যাপারে প্রস্তাব পাঠানো হযেছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়াও অন্য যে সমস্যাগুলো রয়েছে তা সমাধানে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এছাড়া বসবাসকারী মানুষের নাগরিক সুবিধা বাড়ানোর আশ্বাসও দেন তিনি।

এ জাতীয় আরও খবর

শেখ রাসেলের জন্মদিনে ৫৮ কেজি ওজনের কেক কাটলেন মেয়র জাহাঙ্গীর

বিনা ভোটে নির্বাচিত হচ্ছেন ১৮ চেয়ারম্যান

‘প্রশাসনে বাংলাদেশি যেমন আছে, অসংখ্য পাকিস্তানিও আছে’

সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘের আহ্বান

শিশু শ্রমে নির্মাণ হচ্ছে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর

পীরগঞ্জে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় মতবিনিময়

বিএনপি-জামায়াত বা তৃতীয় শক্তির জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পীরগঞ্জে জেলে পল্লিতে হামলার প্রতিবাদে দিনাজপুরে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ

উপকূলে ৩নং সতর্ক সংকেত, দক্ষিণাঞ্চলে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা

‘শেখ রাসেল স্বর্ণ পদক’ বিতরণ করলেন প্রধানমন্ত্রী

কোন শিশুকে যেন রাসেলের ভাগ্যবরণ করতে না হয়: প্রধানমন্ত্রী

ফতুল্লায় মিশুক চালককে হত্যার দুই ঘাতক গ্রেপ্তার