আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরায় যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা

news-image

কুমিল্লায় মাদক কারবারকে কেন্দ্র করে হামলার পর হাসপাতাল থেকে সুস্থ বাড়ি ফেরায় নাদিম নামে এক যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

শুক্রবার জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার সুয়াগাজী ভাটপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাদিম (৩২) ভাটপাড়া গ্রামের ইদু মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ আব্দুল মান্নান নামে একজনকে আটক করেছে। এতে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, এলাকায় মাদক কারবার নিয়ে প্রতিপক্ষের সঙ্গে বিরোধ চলছিল নাদিমের। কয়েক দিন আগে এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান চালায় র‌্যাবের একটি দল।

বিরোধীপক্ষের ধারণা, নাদিমের তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়েছিল র‌্যাব। এ নিয়ে বিরোধীদের সঙ্গে নাদিমের সম্পর্কের অবনতি ঘটে। এ নিয়ে গত দুই দিন আগে তাকে পিটিয়ে আহত করা হয়। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে নাদিম। খবর পেয়ে প্রতিপক্ষের ১০-১২ সন্ত্রাসী তার বাড়িতে এসে তাকেসহ পরিবারের সদস্যদেরকে উপর্যুপরি কোপায়।

এতে তার স্ত্রী আমেনা বেগম, ভাই রাসেল, ও বাবা ইদু মিয়া আহত হন। এ সময় স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল হাসপাতালে নেয়ার পথে নাদিমের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে সদর দক্ষিণ মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে হামলাকারীদের ধাওয়া করে। পরে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একই গ্রামের আবদুল মান্নান (৩৮) কে আটক করে।

পুলিশ বলছে, নাদিমের বিরুদ্ধে সদর দক্ষিণসহ বেশ কয়েকটি থানায় খুন, ডাকাতি ও মাদকের মামলা রয়েছে।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি দেবাশীষ চৌধুরী বলেন, স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ছিলাম। ওই সময় খবর পাই আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে খুনের ঘটনা ঘটেছে। আমি ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। তদন্তে বেড়িয়ে আসবে হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত রহস্য।