আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

স্বামী ঘরে না থাকায় অস্ত্রের মুখে গৃহবধূকে ধর্ষণ, বাঁচতে যুবকের কাণ্ড

news-image

ঢাকার ধামরাইয়ে স্বামী ঘরে না থাকায় গৃহবধূকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করে স্থানীয় যুবক রাকিব হোসেন রকি। এ ঘটনায় সালিশ বৈঠকের আয়োজন করলে রাকিব দুই শিশু সন্তানসহ ওই গৃহবধূকে অপহরণ করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে ধামরাই থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই গৃহবধূর স্বামী।

সূত্র জানায়, বুধবার রাতে স্বামী ঘরে না থাকায় এলাকার বখাটে রাকিব হোসেন রকি অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ওই গৃহবধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ওই গৃহবধূর ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ওই ধর্ষক দৌড়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে সালিশ বৈঠকেরও আয়োজন করা হয়।

এদিকে রাকিব হোসেন রকি সালিশি বৈঠকের বিষয়টি টের পেয়ে শুক্রবার বিকালে দুই শিশু সন্তানসহ ওই গৃহবধূকে অপহরণ করে। এর পর সুয়াপুর গ্রামের মমিন নামে এক মধ্যস্থতাকারীর মাধ্যমে ওই গৃহবধূর স্বামীর কাছে স্ত্রী ও দুই শিশু সন্তানের মুক্তির জন্য ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে রাকিব হোসেন রকি।

ধামরাই থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন বলেন, এ ব্যাপারে ওই গৃহবধূর স্বামী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।