আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

স্বাস্থ্যবিধি না মেনে যাত্রীবোঝাই লঞ্চ ছাড়ছে সদরঘাট থেকে

news-image

দ্বিতীয় দফায় করোনাভাইরাসের প্রদুর্ভাব রুখতে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে লঞ্চে অর্ধেক যাত্রী উঠানোর কথা থাকলেও, সে নির্দেশনা মানা হচ্ছে না। শনিবার সরেজমিনে রাজধানীর সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে যাত্রীদের প্রচণ্ড ভিড় দেখা গেছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, লঞ্চের ডেকে অনেক যাত্রীদের মুখে মাস্ক নেই। সামাজিক দূরত্ব মানার কোনো বালাই নেই। ঘেঁষাঘেঁষি করে অবস্থান করছেন। কেউ আবার জড়ো হয়ে আড্ডা দিচ্ছেন।

বরিশালগামী যাত্রী ফয়সাল আরেফিন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, লঞ্চে অর্ধেকের বেশি যাত্রী নেয়া হচ্ছে। কিন্তু ভাড়া ৬০ শতাংশ বেশিই নিচ্ছে। আগে ডেকে ভাড়া ছিল ১২০ এখন ১৮০। কিন্তু যাত্রী আগের মতোই বোঝাই করে নিচ্ছে।

এ বিষয়ে বরিশালগামী ঈগল লঞ্চের কেরাণী বলছেন ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, এক ফ্যামিলির চারজন সদস্য সিট না নিয়ে ডেকে করে যাচ্ছেন। আমরা দাগ টেনে দিয়েছি তারা সেগুলা মানছেন না। এরকম অনেক ফ্যামিলি চাদর বিছিয়ে নিজেদের মতো করে যাচ্ছেন।

ভাড়ার বিষয়ে বলেন, সরকার থেকে যতটুকু ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছে আমরা তত টুকুই নিচ্ছি। কেবিনে ভাড়া বাড়ানো হয়নি। শুধু ডেক আর চেয়ার কোচের ভাড়া ৬০ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

ঢাকা নদীবন্দর ও পরিবহন বিভাগের উপ-পরিচালক এহতেশামুল হক পারভেজ বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য আমাদের লঞ্চ মালিক পর্যাপ্ত নির্দেশনা দিয়ে থাকলেও যাত্রীরা সেটি মানছেন না। এতে আমাদের কিছু করার নেই।

অর্ধেকের বেশি যাত্রী নেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। তবে শুক্র ও শনিবার একটু ভিড় বেশি হচ্ছে।

সোমবার থেকে দেয়া লকডাউনে আগামী এক সপ্তাহ লঞ্চ চলাচল করবে কিনা এ বিষয়ে তিনি বলেন, সরকার আমাদের যে সিদ্ধান্ত দেবে আমরা তা মেনে চলব।