আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

হ্যাটট্রিক নাকি নবসূচনা

news-image

পুরো দেশের সচেতন মানুষের চোখ আজ শীতলক্ষ্যা পাড়ে, ‘প্রাচ্যের ড্যান্ডি’খ্যাত নারায়ণগঞ্জে। যেখানে আজ রোববার ভোটের মহারণ। একদিকে ১৯ বছরের অপরাজেয় ‘অপরাজিতা’, অন্যদিকে রাজনীতির মাঠে পোড় খাওয়া এক ‘ভোটযোদ্ধা’। নৌকার বৈঠা হাতে সেলিনা হায়াৎ আইভী আর হাতির পিঠে সওয়ার হওয়া তৈমূর আলম খন্দকার। আইভী আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে মাঠে থাকলেও দলটির একাংশের সমর্থন পাওয়া নিয়ে দ্বিধা এখনও তাকে পোড়াচ্ছে। অন্যদিকে, বিএনপি নেই নির্বাচনে। সংগঠনের অমতে ভোটে দাঁড়িয়ে তৈমূর এরই মধ্যে খুইয়েছেন দলীয় সব পদ। তার পরও কৌশলে খুঁজছেন ধানের শীষের ছায়া।

অথচ নারায়ণগঞ্জের ভোটের গল্প চুকে যেতে পারত সহজেই। যদি ভোটের মঞ্চে না থাকতেন তৈমূর। নিরুত্তাপ প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো আজ আবার মেয়র হয়ে যেতে পারতেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী আইভী। তৈমূরের অংশগ্রহণে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন এক কথায় রুদ্ধশ্বাসের ভোট হয়ে উঠল। এখন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে আলোচনার তুঙ্গে তিনি। বিজয় ছিনিয়ে নেওয়ার স্বপ্ন বুনছেন। শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পেয়ে টানা ১৮ দিন ভোটারের দুয়ারে দুয়ারে ছুটতে হয়েছে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে। এর মধ্যে যোগ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ রাজনীতির উপদলীয় বিবাদ। ২০১১ সালে এই সিটির প্রথম ভোটে শেষ মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়ে আইভীর জয়কে সহজ করে দিয়েছিলেন তৈমূর। আজ তার তৃতীয় জয়ে বড় বাধাও সেই তৈমূর। দেখার বিষয়, আজ আইভী হ্যাটট্রিক জয় পাচ্ছেন, নাকি তৈমূরের হাতে উঠছে নগরের চাবি।

এবারের ভোটে প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘনের পাল্টাপাল্টি অভিযোগসহ নানা তৎপরতায় নির্বাচনী পরিবেশে উত্তাপ ছড়ালেও বড় ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর মেলেনি। এর আগে দেশের নির্বাচনী চেহারার যে নেতিবাচক ছবি ফুটে উঠেছে, নারায়ণগঞ্জের ভোটে এখন পর্যন্ত তেমনটা চোখে পড়েনি। দু’পক্ষই প্রচার চালিয়েছে সমানতালে। যদিও ভোটের আগের দিন স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূরের গাড়িচালকসহ বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর বাইরে শামীম ওসমানপন্থিদের বিরুদ্ধেও পুলিশি অভিযানের খবর পাওয়া গেছে। প্রশাসনের এমন তৎপরতায় সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তৈমূর। গতকাল শনিবার দুপুরের পর থেকেই শহরের প্রধান সড়কগুলোতে র‌্যাব-পুলিশের মহড়া দেখা গেছে। তার পরও আজ জমজমাট একটি ভোটের লড়াই দেখতে উন্মুখ পুরো দেশ।

এদিকে দুপুরে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার আলাদা সংবাদ সম্মেলনে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন আয়োজনে প্রশাসনের সব ধরনের প্রস্তুতির কথা তুলে ধরেন। জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ ধরপাকড়ের ব্যাপারে বলেছেন, নির্বাচনের রুটিন ওয়ার্ক হিসেবে তারা দাগি আসামিদের গ্রেপ্তার করছেন। তৈমূরের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলেও তিনি দাবি করেন।

সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে টানা ভোট। মোট ২৭টি ওয়ার্ডে ভোটকেন্দ্র ১৯২টি। সবগুলোতে ভোট নেওয়া হবে ইভিএমে। পুলিশ সুপার দাবি করেছেন, এই নির্বাচনে কোনো ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নেই।

একটি মেয়র পদের সাত প্রার্থীর পাশাপাশি সংরক্ষিত ৯টি নারী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের বিপরীতে লড়ছেন ৩৪ জন এবং ২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদের বিপরীতে লড়াইয়ে আছেন ১৮৯ জন।

ভোটের অঙ্ক: কী হবে ভোটের ফল, নগরবাসী পরিবর্তনের পক্ষে রায় দেবে, নাকি পুরোনো নগরকন্যাকেই বেছে নেবে? প্রচারণার শুরু থেকেই আইভী দাবি করে আসছেন, গত ১০ বছরে তিনি নাসিকের মেয়র হিসেবে নগরের ২৭টি ওয়ার্ডে সমানভাবে উন্নয়ন করেছেন। উন্নয়নের কারণেই তিনি সবার ভোট পাবেন।

তৈমূর বলছেন, নানা কারণে গত ১০ বছর নগরভবন প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে। গড়ে উঠেছে ঠিকাদার সিন্ডিকেট। নগরের হোল্ডিং ট্যাক্স, ট্রেড লাইসেন্স ফি বাড়ানো হয়েছে অস্বাভাবিকভাবে। সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা যায়নি। রয়েছে জলাবদ্ধতার সমস্যা। সর্বোপরি একটি পরিকল্পিত নগরী গড়ে তুলতে ব্যর্থ হয়েছেন সাবেক মেয়র। কিছু রাস্তা আর ড্রেন নির্মাণ করে উন্নয়নের দাবি করাটা হাস্যকর।

এবারের নির্বাচনে নতুন ভোটার ৪২ হাজার ৪৩০ জন। বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক শিপন সরকার শিখন দাবি করেছেন, নগরীতে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ভোট রয়েছে ৭০ থেকে ৭২ হাজার। নতুন ভোটার ও হিন্দু ভোটারদের ভোটই নির্বাচনে ব্যবধান গড়ে দিতে পারে।

বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও জামায়াতে ইসলামীর আলাদা ভোট রয়েছে। আছে ওসমান পরিবারের আলাদা ভোট ব্যাংকও। তিন এলাকার মধ্যে আইভী সব সময় শহর-বন্দরে ভালো ফল করে এসেছেন। পৌরসভা আমল থেকে নারায়ণগঞ্জ শহরে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কখনও আওয়ামী লীগ হারেনি। সর্বশেষ ২০১৬ সালের নির্বাচনে সিদ্ধিরগঞ্জের ১৫টি কেন্দ্রে আইভীর চেয়ে বেশি ভোট পেয়েছিলেন বিএনপি প্রার্থী সাখাওয়াত হোসেন খান। মাঠ যাচাইয়ে মনে হয়েছে, এবার সিদ্ধিরগঞ্জে আইভীর অবস্থান আগের চেয়ে ভালো হলেও বন্দরে ধুঁকতে পারে নৌকা। কারণ হাতি মার্কার নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়ারমান ও সাবেক সংসদ সদস্য এসএম আকরামের বন্দরে গ্রহণযোগতা রয়েছে। ২০১১ সালে তিনি আইভীর নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেছিলেন। আওয়ামী লীগ দলীয় সাবেক এই সংসদ সদস্য বন্দরের ভোটে প্রভাব ফেলবেন বলে অনেকেই মনে করছেন।

বিগত দিনের মতো বিএনপির একাংশের ভোট আইভীর পক্ষে যাওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। যার প্রমাণ ৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী বিএনপিদলীয় সাবেক সংসদ সদস্য মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনের ছেলে গোলাম মুহাম্মদ সাদরিল এবং ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী বিএনপিদলীয় আরেক সাবেক সংসদ সদস্য আবুল কালামের ছেলে আবুল কাউসার আশার নৌকার পক্ষে ভোট চাওয়া। তবে ওসমান পরিবারের অনুসারী সরকারের শরিক দল জাতীয় পার্টি প্রকাশ্যেই নেমেছে তৈমূরের হাতি মার্কার সমর্থনে।

মেয়র পদে আরও পাঁচ প্রার্থী: নৌকা ও হাতির পর ভোটের লড়াইয়ে আছে চরমোনাইর পীর সমর্থিত দলের হাতপাখা। মেয়র পদে মূল লড়াইয়ে থাকার সম্ভাবনা না থাকলেও হাতপাখা উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ভোট পেলে নৌকা কিংবা হাতির প্রার্থীর যে কেউ একজন কাঁদবেন। ২০১৬ সালের সিটির ভোটে প্রায় ১৪ হাজার বা ৫ শতাংশ ভোট পেয়েছিল দলটি। নৌকার প্রায় পৌনে দুই লাখ ভোটে মেয়র নির্বাচিত হওয়া আওয়ামী লীগের আইভী এবং ধানের শীষে ৯৬ হাজার ভোট পাওয়া বিএনপির সাখাওয়াতের পরেই ছিলেন হাতপাখার মাসুম বিল্লাহ।

খেলাফত মজলিসের দেয়ালঘড়ি প্রতীকে মেয়র প্রার্থী হয়েছেন সিরাজুল মামুন। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল ইসলাম ঘোড়া প্রতীকে, কল্যাণ পার্টির রাশেদ ফেরদৌস হাতঘড়ি এবং খেলাফত আন্দোলনের জসিম উদ্দীন লড়ছেন বটগাছ প্রতীক নিয়ে।

শেষ মুহূর্তে ধরপাকড়:শুক্রবার রাতে মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মাকফুরুল ইসলাম পাপন ও যুবদল নেতা হাসানকে তৈমূরের বাসা থেকে বের হওয়ার পর নগরীর ঈদগাহ এলাকা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। একই দিন গভীর রাতে তৈমূরের ব্যক্তিগত সহকারী জামাল হোসেনকে খানপুরের বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ছাড়া তৈমূরের দুই চালক মোহাম্মদ আহসান ও আবু তালেবকে গাড়ির চাবিসহ ডিবি পুলিশ গ্রেপ্তার করে। খবর পেয়ে তৈমূরের মেয়ে ডিবি অফিসে ছুটে যান, সেখান থেকে তাকে ভোটের পরের দিন গাড়ির চাবি দেওয়া হবে বলে জানানো হয়।

এদিকে গতকাল দুপুরে নগরীর টানবাজার থেকে ইয়ার্ন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি লিটন সাহাকে র‌্যাব আটক করার পর বিকেলে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। স্থানীয় রাজনীতিতে তিনি শামীম ওসমানপন্থি হিসেবে পরিচিত। বিকেলে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও তৈমূরের নির্বাচনী প্রধান এজেন্ট এটিএম কামালের মিশনপাড়ার বাসায় পুলিশ তল্লাশি চালায়। এর আগে গত সোমবার তৈমূরের প্রধান নির্বাচনী সমন্বয়ক রবিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

তৈমূর গতকাল থেকে এ পর্যন্ত ১০ নেতাকর্মী ও নির্বাচনী এজেন্টকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন। তবে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জানিয়েছেন, পুলিশ কারও পক্ষ বা বিপক্ষে নয়। যাদের নামে মামলা রয়েছে শুধু তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

প্রস্তুত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: গতকাল দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেছেন, নির্বাচন সুষ্ঠু কর?তে আইনশৃঙ্খলা বা?হিনীর পাঁচ হাজার সদস?্য মোতায়েন থাকবে।

তৈমূর আলম খন্দকারের অভিযোগ প্রসঙ্গে জেলা প্রশাসক বলেন, তার কাছ থেকে লিখিত, ফোনে বা অন্য কোনো মাধ্যমে অভিযোগ পাইনি।

জেলা প্রশাসক বলেন, ভোটের সব সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেটরা কাজ করছে। আরও ৩০ জন ম্যাজিস্ট্রেট কাজ করবে। পুলিশের ৭৫টি টিম ও র?্যাবের ৬৫টি টিম মাঠে থাকছে। বিজিবিও এর সঙ্গে থাকছে। কেন্দ্রগুলোতে ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও বিজিবি কাজ করছে।

বহিরাগতদের প্রসঙ্গে ডিসি বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের কথা তিনি জানেন, কারণ সেটা সরকারি প্রতিষ্ঠান নয়। এ ছাড়া কোনো সরকারি বাসভবনে প্রশাসনের লোক ছাড়া কাউকে স্থান দেওয়া হয়নি। সব সেন্টারকে গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ‘করোনা প্রটোকল মেনে ভোট দিতে হবে।’

এর আগে সকালে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম বলেন, ভোটের দিন কোনো বহিরাগতকে ঢুকতে দেওয়া হবে না। জাতীয় পরিচয়পত্র দেখিয়ে সবাইকে চলাচল করতে হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

নারায়নগঞ্জে ৪১৪ জন শিক্ষককের আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নিলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম

দৌলতদিয়ায় ৭ ফেরিঘাটের ৪টিই বিকল, যানবাহনের দীর্ঘ সারি

পানির নিচে পন্টুন, ঘাটে যানবাহনের দীর্ঘ সারি

ছাত্রদল করা সন্তানের জনক হলেন থানা ছাত্রলীগের সহসভাপতি

যমুনা নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

চাঁদপুরের ডিসিকে বদলি, তিন জেলায় নতুন ডিসি

গাফফার চৌধুরী আর নেই

প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে ভূমি দখলের পাঁয়তারার অভিযোগ

কুমিল্লার মানবজমিন প্রতিনিধিসহ সারাদেশের সাংবাদিকদের উপর হামলার প্রতিবাদে সোচ্চার রূপগঞ্জ প্রেসক্লাব ॥ প্রতিবাদ সভা, মানববন্ধন-বিক্ষোভ মিছিল

চাকরির নামে টাকা আত্মসাৎ গ্রেপ্তার ২

মহাসড়কে গাছ ফেলে ডাকাতি করতো তারা, গ্রেফতার ৬

বনের ভেতর সিসা তৈরির কারখানা, হুমকির মুখে পরিবেশ