আমরা নিরপেক্ষ নই আমরা সত্যের পক্ষে

২০০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ রপ্তানির প্রস্তাব দিয়েছে নেপাল

news-image

বর্তমান সঞ্চালন লাইন ব্যবহার করে ভারতের মাধ্যমে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ বাংলাদেশে রপ্তানির প্রস্তাব দিয়েছে নেপাল। আজ মঙ্গলবার বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা–সংক্রান্ত বাংলাদেশ-নেপাল যৌথ কারিগরি কমিটির তৃতীয় সভায় এমন প্রস্তাব দেওয়া হয়।

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ–নেপালের মধ্যে অনুষ্ঠিত যৌথ সভায় বাংলাদেশের পক্ষে বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মো. হাবিবুর রহমান এবং নেপালের পক্ষে বিদ্যুৎ, পানিসম্পদ ও সেচসচিব দেবেন্দ্র কার্কি নিজ নিজ দেশের প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন। আগামী বছরের মার্চ-এপ্রিলের দিকে যৌথ কারিগরি কমিটির পরবর্তী সভা অনুষ্ঠিত হতে পারে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।
সভায় নেপালে নির্মিত ভারতীয় প্রতিষ্ঠান জিএমআর গ্রুপের ৯০০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, নেপাল থেকে ভারতীয় কোম্পানির বিদ্যুৎ আনতে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি), জিএমআর এবং ভারতের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান এনভিভিএনের মধ্যে একটি চুক্তি চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়ায় আছে বলে যৌথ সভায় জানিয়েছে বাংলাদেশ।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, কারিগরি কমিটির সভায় নেপালে জলবিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের বিপুল সম্ভাবনা এবং উভয় দেশের বিদ্যুতের প্রয়োজনীয়তা বিবেচনায় এই সম্ভাবনা কাজে লাগানোর বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। উভয় দেশের মধ্যে ঋতুভেদে বিদ্যুৎ চাহিদার তারতম্যের আলোকে পারস্পরিক বিদ্যুৎ–বাণিজ্যের বিষয়টি সভায় গুরুত্বসহকারে বিবেচনা করা হয়। নেপালে জলবিদ্যুৎকেন্দ্রে বিনিয়োগের সম্ভাবনা খতিয়ে দেখা ও বাংলাদেশের বেসরকারি খাতের নেপালের বিদ্যুৎ উৎপাদনে বিনিয়োগের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

বিদ্যুৎ বিভাগ বলছে, বাংলাদেশের বিনিয়োগ করার মতো পাঁচটি জলবিদ্যুৎ প্রকল্প চিহ্নিত করে সমীক্ষা চালাচ্ছে নেপাল। নেপালে বিদ্যুৎকেন্দ্রে অর্থায়ন ও যৌথভাবে প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সম্ভাব্য প্রকল্প চিহ্নিত করা, উভয় দেশের মধ্যে বিদ্যুৎ আমদানি-রপ্তানির পন্থা নির্ধারণ এবং আন্তদেশীয় বিদ্যুৎ–সংযোগের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে উভয় দেশের প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত যৌথ কারগিরি দল (উৎপাদন) ও যৌথ কারগিরি দল (সরবরাহ) কাজ করছে। তবে সঞ্চালন লাইনের একটি অংশ ভারতের মধ্যে নির্মিত হবে। তাই বাংলাদেশ-ভারত-নেপাল ত্রিপক্ষীয় সমঝোতার মাধ্যমে বিষয়টি নির্ধারিত হবে বলে সভায় মত প্রকাশ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ও নেপালে নবায়নযোগ্য জ্বালানির সম্প্রসারণের অভিজ্ঞতা, জ্ঞান ও দক্ষতা বিনিময়ে উভয় দেশের মধ্যে সহযোগিতার বিষয় পর্যালোচনা করা হয়েছে সভায়। বাংলাদেশের সোলার হোম সিস্টেম কার্যক্রম ও নেট মিটারিং কার্যক্রমের অভিজ্ঞতা তুলে ধরা হয়। এ বিষয়ে পারস্পরিক সহযোগিতা ও কার্যক্রম গ্রহণের লক্ষ্যে বাংলাদেশের টেকসই নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (স্রেডা) ও নেপালের অল্টারনেটিভ এনার্জি প্রমোশন সেন্টারের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সইয়ের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সভায়।

এর আগে ১৩ সেপ্টেম্বর বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা–সংক্রান্ত বাংলাদেশ-নেপাল যৌথ কারিগরি কমিটির সভা ভার্চ্যুয়ালি অনুষ্ঠিত হয়।

এ জাতীয় আরও খবর

ঈশ্বরদী রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প পরিদর্শনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

রিমান্ড শেষে কারাগারে রাগীব আহসান

বিদ্যালয়ের জমি বেদখল, দোকানের ছাদে পাঠদান

স্বর্ণালঙ্কারের জন্য খুন করা হয় সাবেক প্রধান শিক্ষককে

দুই ট্রেন মুখোমুখি, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন কয়েকশ যাত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জাতিসংঘের ‘এসডিজি অগ্রগতি পুরস্কার’ প্রদান

মানিকগঞ্জের শিবালয়ে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তি ,উপকরণ ও বাইসাইকেল বিতরণ

ময়মনসিংহে পাচারের সময় ভিজিডির ৮৪ বস্তা চাল জব্দ

কয়েক সেকেন্ডেই তালা খোলে চক্রটি, টার্গেট কর্পোরেট অফিস

প্রতারণার ফাঁদে ফেলে শতাধিক গাড়ি চুরি, দুই প্রতারক গ্রেফতার

মিরপুরে এসএসসির ডুপ্লিকেট সার্টিফিকেট, আতংকে শিক্ষার্থীরা

করোনায় আরও ২৬ জনের মৃত্যু